সিবিএন ডেস্ক:

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে একই পরিবারের ১২ সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। তাদের প্রত্যেককে টানা ১৪ দিন বাড়ির বাইরে না যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

এ সময়ে পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে না মেশারও পরামর্শ দেয়া হয়েছে। তাদের পর্যবেক্ষণ করার জন্য বিশেষ একটি টিম গঠন করা হয়েছে।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শামিমা শারমিন লুবনা জানান, কিছুদিন আগে ফয়লা গ্রামের বাসিন্দা অজয়ের (ছদ্মনাম) বাড়িতে বেড়াতে আসে আমেরিকা প্রবাসী ভাইয়ের এক মেয়ে। সে মাত্র একদিন ওই বাড়িতে অবস্থান করে খুলনায় ফিরে যায়। এরপর ঝিনাইদহ স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে ওই বাড়ির ১২ সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়।

অজয়ের (ছদ্মনাম) স্ত্রী বলেন, ‘আমেরিকা থেকে আমাদের ভাইজি বাড়িতে বেড়াতে আসে। একদিন থেকে সে চলে যায়। এরপর বাড়িতে কিছু ডাক্তার এসে আমাদের ১৪ দিন বাড়ির মধ্যে থাকার নির্দেশ দেন।’

তিনি আরও জানান, সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকা, বাড়ি থেকে বের না হওয়াসহ বিভিন্ন নির্দেশনা দেন।

ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন ডাক্তার সেলিনা বেগম বলেন, ‘কালীগঞ্জ উপজেলার ফয়লা দাসপাড়ার ওই বাড়িতে আমেরিকা থেকে এক প্রবাসী বেড়াতে আসে। আমরা বিষয়টি জানার পর ওই বাড়ির ১২ সদস্যকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দিয়েছি।’

এদিকে, চাঁদপুরে বিদেশফেরত ৬০৮ জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার নির্দেশনা দিয়েছ জেলার সিভিল সার্জন। শরীয়তপুরে ১৯২ জনকে একই নির্দেশনা দেয়া হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •