আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
ইউরোপের দেশগুলো থেকে ৩০ দিন যুক্তরাষ্ট্রে ভ্রমণ করা যাবে না। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক ঘোষণায় ইউরোপ থেকে আগত নাগরিকদের ওপর সব ধরনের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন। তবে এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকছে না যুক্তরাজ্য।

আগামী শুক্রবার থেকে এই নিষেধাজ্ঞা চালু হবে। নভেল করোনাভাইরাসের প্রকোপ বেড়ে যাওয়ায় এমন পদক্ষেপ নিলেন ট্রাম্প। এই ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার মধ্যে সব ধরনের বাণিজ্যিও বন্ধ থাকবে। জাতির উদ্দেশে দেয়া এক ভাষণে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, ইউরোপে বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে কারণ দেশগুলো চীন থেকে লোকজনের আসা-যাওয়া বন্ধ করতে পারছে না।

ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে করোনাভাইরাসের কারণে মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে ইতালি। দেশটিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ১৯৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৮২৭ জনে।

একদিনে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৩১৪ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১০ হাজার ৫৯০ জন। দেশটিতে এখন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ১২ হাজার ৪৬২ জন- চীনের পর যা সর্বোচ্চ। ইউরোপের অন্যান্য দেশেও করোনার প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরেই প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসের প্রকোপ ধরা পড়ে। এরপর থেকেই তা বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে ইউরোপের অন্যান্য দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা আনা হলেও যুক্তরাজ্যের ওপর নিষেধাজ্ঞা না আনার বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, কঠিন কিন্তু জরুরি এই নিষেধাজ্ঞা যুক্তরাজ্যের ওপর প্রভাব ফেলবে না। যদিও দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৪৬০ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

বুধবার প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসকে বৈশ্বিক মহামারি ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এরপরেই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইউরোপীয় দেশগুলোর ওপর নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দেন। গত দুই সপ্তাহে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা উৎপত্তিস্থল চীনের বাইরে ১৩ গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে বলে উল্লেখ করেছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান তেদ্রস আধানম ঘেব্রেয়েসুস। এ ভাইরাসের আশঙ্কাজনক মাত্রায় বৃদ্ধির বিষয়ে তিনি ‘গভীরভাবে শঙ্কা’ প্রকাশ করেছেন।

তিনি বিভিন্ন দেশের সরকারকে ‘জরুরি পদক্ষেপ’ গ্রহণের মাধ্যমে এই প্রাদুর্ভাব থেকে উত্তেরণের আহ্বান জানিয়েছেন। ইউরোপের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের আগে কয়েক দফা টুইট করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, মার্কিন নাগরিক এবং বিশ্বের মানুষের প্রাণ রক্ষায় করোনাভাইরাস প্রতিরোধ, শনাক্ত, চিকিৎসা এবং এর ভ্যাকসিন তৈরিতে নতুন নীতিমালা তৈরি করছে যুক্তরাষ্ট্র।

অপর এক টুইটে ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্র একটি বিশাল দেশ। আমাদের সবচেয়ে ভালো বিজ্ঞানী, চিকিৎসক, নার্স এবং স্বাস্থ্যকর্মী রয়েছে। এখানে এমন বহু মানুষ আছে যারা প্রতিদিন অসাধারণ কাজ করছে।

এদিকে বুধবার ওয়াশিংটনে জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে। ওয়াশিংটনের মেয়র মুরিয়েল বাউসার ওই অঙ্গরাজ্যে ১০ জনের করোনায় আক্রান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। অপরদিকে, যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত ১ হাজার ১৩৫ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে এবং মারা গেছে ৩৮ জন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •