হাফেজ মুহাম্মদ কাশেম, টেকনাফ
টেকনাফ পৌরসভা ১ম শ্রেণীতে উন্নীত হয়েছে। এর আগে টেকনাফ পৌরসভা ২য় শ্রেণীভুক্ত ছিল। ১০ মার্চ ২০২০ রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে উপ-সচিব ফারজানা মান্নান স্বাক্ষরিত ৩৫৯ নম্বর স্মারক মূলে প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ জারি করা হয়। ১১ মার্চ রাত সাড়ে ১০টায় ঢাকা থেকে টেকনাফ পৌর মেয়র আলহাজ¦ মোহাম্মদ ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, টেকনাফ পৌরসভা ২য় শ্রেণীভুক্ত থেকে ১ম শ্রেণীতে উন্নীত হওয়ায় পৌরসভার নাগরিক সেবার মান বৃদ্ধি পাবে বলে উল্লাসিত পৌর নাগরিকবৃন্দ। স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব হেলাল উদ্দীন আহমদের একান্ত প্রচেষ্টায় টেকনাফ পৌরসভা ‘ক’ গ্রেডে উন্নীত হয়েছে বলে জানান দায়িত্বশীলরা। পৌরসভা প্রথম শ্রেণীতে উন্নীত হওয়া পৌরবাসীদের জন্য অবশ্যই আনন্দের ও গর্বের বিষয়। পৌরসভা ১ম শ্রেনীতে উন্নীত হওয়ার পিছনে মেয়র, সচিব, পৌর প্রকৌশলী, অফিস স্টাফ ও পৌরবাসীর সহযোগিতা রয়েছে। ২০০০ সালের ১ জানুয়ারী টেকনাফ পৌরসভা গঠিত হয়েছিল। এরপর ধাপে ধাপে সর্বশেষ ‘খ’ শ্রেনীভুক্ত ছিল।

টেকনাফ পৌরসভা ‘খ’ শ্রেণী হতে ‘ক’ শ্রেণীতে উন্নীত হওয়ায় টেকনাফ পৌরবাসীর প্রতি অভিনন্দন জানিয়ে সর্বক্ষেত্রে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন পৌরসভা হিসাবে গড়ে তুলতে সর্বমহলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করে পৌর মেয়র হাজ্বী মোহাম্মদ ইসলাম প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘এজন্য আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, কক্সবাজার-৪ উখিয়া-টেকনাফ আসনের সংসদ সদস্য শাহীন আক্তার বদি, কক্সবাজারের জনপ্রিয় সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আবদুর রহমান বদি সিআইপি, স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলাল উদ্দীন আহমদ এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি’।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •