প্রেস বিজ্ঞপ্তি :

ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুুতি কর্মসূচীর সিপিপি শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবক পুরস্কার ২০২০ পেলেন বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি চট্টগ্রাম জেলা ইউনিটের কার্যনির্বাহী সদস্য ফখরুল ইসলাম চৌধুরী পরাগ। তিনি যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের প্রাক্তন যুব প্রধান এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ন্যাশনাল ইয়ুথ লিডারশীপ ফোরামের যুগ্ন সম্পাদক। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় দুর্যোগ ঝুকিহ্রাসে অনন্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ তাকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক মঙ্গলবার (১০ মার্চ) সকালে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস ২০২০ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তন এ সম্মাননা পুরস্কার দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ডাঃ মোঃ এনামুর রহমান এমপি শ্রেষ্ঠ স্বেচ্ছাসেবক সম্মাননা পুরস্কার হিসেবে মেডেল ও সনদপত্র ফখরুল ইসলাম চৌধুরী’র হাতে তুলে দেন। এসময় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি এ বি তাজুল ইসলাম, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব শাহ কামাল, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের মহাপরিচালক (অপারেসন্স এন্ড প্লানিং) ব্রিগেডিয়ার এএনএম মঞ্জুুরুল হক মজুমদার এনডিসি দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোঃ মোহসীন ও ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুুতি কর্মসূচীর (সিপিপি) পরিচালক (প্রশাসন) আহমাদুল হক উপস্থিত ছিলেন।

জনাব ফখরুল ইসলাম চৌধুরী পরাগ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত। তিনি ২০০০ সালে থেকে যুব রেড ক্রিসেন্টের সেচ্ছাসেবক হিসেবে সেবা কার্যক্রম শুরু করেন এবং ২০০৫ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত যুব রেড ক্রিসেন্ট সিটি কলেজ ইউনিটের যুবপ্রধান হিসেবে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেন। তাছাড়া তিনি বিভিন্ন মেয়াদে যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের বন্ধুত্ব , প্রচার ও প্রকাশনা বিভাগের উপপ্রধান ও প্রধান এবং যুব উপপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের প্রাক্তন যুব প্রধান। তিনি পটিয়া সমিতি-চট্টগ্রাম সিটির কার্যকরী পর্ষদের সদস্য ছিলেন বর্তমানে যুগ্ন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি আন্তর্জাতিক সেবা সংগঠন লিও ক্লাব অব বেঙ্গল সিটির চার্টার প্রেসিডেন্ট, বিভিন্ন সময় তিনি লিও জেলা ৩১৫-বি৪ বাংলাদেশের ডিরেক্টর, জোনাল ডিরেক্টর, রিজোনাল ডিরেক্টর ও রিজোনাল ডিরেক্টর হেড কোয়াটার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বর্তমানে লিও জেলা ৩১৫-বি৪ বাংলাদেশের জেলা সভাপতির উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য, তিনি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা প্রত্যাশার প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি। তিনি বাংলাদেশ ডায়বেটিক সমিতি, মা ও শিশু হাসপাতালসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথে জড়িত।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •