শাহেদ মিজান, সিবিএন:

জেলা আওয়ামী লীগ আহূত ‘বিশাল’ লবণচাষী সমাবেশ বাতিল হয়নি। মন্ত্রীর আগমণের সিডিউল বদলের কারণে সময় পরিবর্তন করে আগামীকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় এই লবণচাষী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। এই জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন রয়েছে। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এড. সিরাজুল মোস্তফা এই তথ্য জানান।

এড. সিরাজুল মোস্তফা জানান, এক বিশাল লবণচাষী সমাবেশের ডাক দেয় জেলা আওয়ামী লীগ। পূর্ব নির্ধারিত সময়সূচী বৃহস্পতিবার বিকালে পাবলিক লাইব্রেরির শহীদ দৌলত ময়দানে এই সমাবেশ হওয়ার কথা ছিলো। এতে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিলো শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন ও প্রতিমন্ত্রী কামাল আহমেদ মজুমদার । কিন্তু মন্ত্রাণালয়ে মন্ত্রীর হঠাৎ জরুরী কাজ পড়ায় মন্ত্রী কক্সবাজার আসতে পারেননি। তবে তিনি আগামীকাল শুক্রবার সকালের আসার বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তাই লবণচাষী সমাবেশ পিছিয়ে দিয়ে শুক্রবার সকালে নেয়া হয়েছে। মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী সকাল ৯টায় কক্সবাজার পৌঁছাবেন।

জেলা আওয়ামী লীগ সূত্রে জানা যায়, কক্সবাজারে লবণ চাষীদের স্বার্থ সংরক্ষণ, লবণের ন্যায্যমূল্য নির্ধারণ ও সোডিয়াম সালফেডের নামে সোডিয়াম ক্লোরাইড আমদানী নিষিদ্ধ করণ, সরকারিভাবে চাষীদের কাছ থেকে ন্যায্য মুল্যে লবণ ক্রয়সহ ইত্যাদি যৌক্তিক দাবীতে বিশাল লবণ চাষী সমাবেশের ডাক দেয় জেলা আওয়ামী লীগ। এতে জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের লবণ চাষীয়দেরা অংশ নেবেন। বৃহস্পতিবার বিকালের পূর্ব নির্ধারিত সময় সূচী থাকায় অনেক লবণচাষীয় কক্সবাজার শহরে চলে এসেছেন। সমাবেশ স্থগিত হলেও তারা ফিরে যায়নি। তারা আগামীকালের সমাবেশে যোগ দিয়ে তারপর ফিরে যাবে। তাদের রাত্রী যাপনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়াও জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের বিপুল সংখ্যক লবণচাষী সমাবেশে অংশ নেবেন বলে আশা করছে নেতৃবৃন্দ।

জানা গেছে, উক্ত লবণচাষীয় সমাবেশে বক্তব্য রাখবেন জেলা আওয়ামী লীগ, জাতীয় সংসদ সদস্যগণ ও লবণ চাষী নেতৃবৃন্দ। সমাবেশে কক্সবাজারের সকল লবণচাষী ও সর্বস্তরের জনগণকে যথাসময়ে দলে দলে মিছিলে মিছিলে যোগদান করার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা ও সাধারণ সম্পাদক মেয়র মুজিবুর রহমান।

প্রসঙ্গত: সমাবেশটি প্রথমেই একই ভেন্যুতে ৬ মার্চ সকাল ১০টায় হওয়ার কথা ছিলো। বিশেষ কারনে তা একদিন এগিয়ে এনে ৫ মার্চ বিকেল ৩টায় নতুন সময় নির্ধারণ করা হয়েছে। কিন্তু মন্ত্রী আগমণ করতে না পারায় আবারো পিছিয়ে প্রথম নির্ধারিত সময় সূচীতে অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •