সিবিএন ডেস্ক
দুর্নীতির মামলায় পিরোজপুর-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএমএ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভীনের জামিন নাকচ করায় বিচারক প্রত্যাহার ও পরে কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে অন্য বিচারক দিয়ে জামিন দেওয়ার ঘটনায় উদ্বেগ জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। বুধবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ উদ্বেগ জানায় সংগঠনটি।

টিআইবির বিবৃতিতে বলা হয়, দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় পিরোজপুর-১ আসনের ক্ষমতাসীন দলের সাবেক সংসদ সদস্য ও তার স্ত্রীর জামিন নামঞ্জুরের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট বিচারককে তাৎক্ষণিক বদলি এবং কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ভারপ্রাপ্ত জজ দিয়ে জামিন মঞ্জুরের ঘটনা বাংলাদেশের অধস্তন আদালতের বিচারিক ইতিহাসে বিরল ও ভয়াবহ দৃষ্টান্ত। এতে টিআইবি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছে। একইসঙ্গে দেশে আইনের শাসন ও ন্যায়বিচারের সম্ভাবনা বিকাশের স্বার্থে বিচার বিভাগকে কার্যকরভাবে নির্বাহী বিভাগের নিয়ন্ত্রণমুক্ত করার আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি।

টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বিবৃতিতে বলেন, ‘দুদকের মামলায় পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং তার স্ত্রীর জামিন নামঞ্জুরকে কেন্দ্র করে যে ঘটনা ঘটেছে তা অভূতপূর্ব। এটি দেশে আইনের শাসন, ন্যায়বিচার ও জবাবদিহিমূলক গণতন্ত্রের পথ রুদ্ধ করার এক ভয়াবহ দৃষ্টান্ত হিসেবে বিবেচিত হবে। এই ঘটনা আদালতের ওপর নির্বাহী বিভাগ ও রাজনৈতিক প্রভাবের ব্যাপক বিস্তার, প্রভাবশালীদের হাতে আইনের শাসনের জিম্মি হওয়া ও বিচারহীনতার সংস্কৃতিকে ক্রমাগত বিকাশে তৎপর স্বার্থান্বেষী মহলকে আরও ক্ষমতায়িত করবে।’

বিজ্ঞপ্তিতে ড. ইফতেখারুজ্জামান আরও বলেন, ‘আমরা সরকার ও রাজনৈতিক নেতৃত্বের প্রতি এ ধরনের আত্মঘাতী পথ পরিহার করে বিচার বিভাগকে বাস্তবেই স্বাধীন করার উপযোগী কার্যকর পথ অনুসরণের জন্য আহ্বান জানাই।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •