এহসান আল কুতুবীঃ
কুতুবদিয়া বড়ঘোপ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আ ন ম শহীদ উদ্দিন ছোটন বলেছেন, আমি নির্বাচনের আগে আজম কলোনীবাসীকে ওয়াদা দিয়েছিলাম, নির্বাচিত হলে দীর্ঘ সত্তর বছরের মিঠা পানির সমস্যার সমাধান করে দিবো। আল্লাহর রহমত ও আপনাদের ভোটে আমি নির্বাচিত হয়ে মিঠা পানির ব্যবস্থা করে দিয়েছি।

তিনি বলেন, এই কলোনীকে একটি গোষ্ঠীর কলোনী করে রাখা হয়েছিলো। এখন আর কোনো গোষ্ঠীর কলোনী হিসেবে থাকবেনা। যদি আমি আমার পরিকল্পনা সুন্দরমত বাস্তবায়ন করতে পারি এই কলোনীকে বড়ঘোপের শ্রেষ্ঠ এলাকা হিসেবে গড়ে তোলা হবে ইনশাআল্লাহ।

পাশাপাশি এই কলোনীকে কুতুবদিয়াবাসী দেখার মতো একটি ছোট শহর হিসেবে গড়ে তোলারও ঘোষণা দেন।

মঙ্গলবার ( ৩ মার্চ) সন্ধ্যায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর দীর্ঘ সত্তর বছরের সমস্যা মিঠা পানির ব্যবস্থা করে দেওয়ায় স্থানীয় ব্রাকসেন্টার মাঠে এক গণসংবর্ধনার আয়োজন করে এলাকাবাসী। সংবর্ধনার জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ছোটন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী “গ্রাম হবে শহর” এই পরিকল্পনা নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। যদি জায়গা পাই, আজম কলোনীতে স্কুলের কাজ শুরু করবো। পাশাপাশি, পুরো এলাকাকে সোলার বিদ্যুতের আওতায় এনে আধুনিক ও ছোট্ট শহর হিসেবে গড়ে তোলা হবে।

পিলটকাটা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মাষ্টার মোহাম্মদ হোসাইনের সভাপতিত্বে ও ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ সময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চেয়ারম্যানের সহধর্মিণী দিলরুবা তাহেরা বেগম, উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব আবদুল মুনাফ, আবু শামা বাচ্চু, ছৈয়দুল ইসলাম, মুহাম্মদ রশিদ, সাবেক এমইউপি সালাহ উদ্দিন, মিজানুর রহমান, আবদুল আজিজ, ছাত্রলীগ নেতা হাসান মুরাদ, বাবুল।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য জিয়াউল হক জিয়া, হেলাল উদ্দিন, নাছির উদ্দীন, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য লায়লা বেগম, শাহানা বেগম, শারমিন আকতার উর্মী প্রমূখ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •