যমুনা :
নাটকীয়ভাবে দুর্নীতি দমন কমিশনের দায়েরকৃত তিনটি মামলায় পিরোজপুরের সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভিনকে জামিন দিয়েছেন পিরোজপুর জেলা দায়রা ও জজ আদালত। এর আগে আজ দুপুর ১২ টায় জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে তাদেরকে জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন পিরোজপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোঃ আব্দুল মান্নান। সেই রায়ের ঘোষণার পরে আইনজীবীরা আদালত বর্জন করে। পরে ৪ ঘণ্টা পর বিকেল ৪ টার দিকে ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ নাহিদ নাসরিন শুনানি শেষে একেএমএ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভিনের ২ মাসের জামিন মঞ্জুর করেন। এসময় পিরোজপুরের জেলা দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোঃ আব্দুল মান্নানকে স্ট্যান্ড রিলিজ করা হয়েছে বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল হক খান পান্না ।

এ বিষয়ে জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল হক খান পান্না জানান, সাবেক এমপি একেএমএ আউয়াল এর বিরুদ্ধে দুদক যে মামলা করেছে তাতে কোন ক্রিমিনাল অফেন্স না থাকায় আমরা জামিনের আবেদন করি। জেলা ও দায়রা জজ জামিনের আবেদন নাকচ করে। এর কিছু পরেই তারা জানতে পারেন জেলা ও দায়রাজজ আব্দুল মান্নান এর স্থলে ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ হয়েছেন ২য় যুগ্মজজ নাহিদ নাসরিন। এর পরই সকল আইনজীবীরা পুনরায় তার আদালতে জামিনের আবেদন করেন। ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ নাহিদ নাসরিন শুনানি শেষে একেএমএ আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভিন কে ২ মাসের জামিন মঞ্জুর করেন। ৩টি মামলারই বাদী হয়েছেন দুদক প্রধান কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. আলী আকবর।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •