নিজস্ব প্রতিবেদক:
প্রতি বছরের মতো ২ মার্চ রামুর চেইন্দাস্থ  হোপ হসপিটালে শুরু হয়েছে আগুনে পুড়ে চামড়া, মাংশ অথবা শরীরের যে কোন অংশ বাঁকা হওয়া, জোড়া লেগে যাওয়া এবং কুঁচকে যাওয়া সমস্যা নির্মূলের উদ্দেশ্যে হোপ ফ্রি প্লাস্টিক সার্জারি ক্যাম্প।
স্বনামধন্য প্লাস্টিক সার্জন প্রফেসর ডাঃ সাফকাত খন্দকার এর নের্তৃত্বে Resurge International, USA  নামক একটি আমেরিকান প্রতিষ্ঠানের সার্বিক সহায়তায় হোপ বার্ণ সার্জারি ক্যাম্প প্রতিদিন সকাল ৯ টা থেকে শুরু হবে এবং আগামী ১৩ মার্চ  পর্যন্ত চলবে। উক্ত ক্যাম্পে সার্জারীর সাথে ঔষধসহ সম্পূর্ণ বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হবে।

এ প্রসঙ্গে হোপ ফাউন্ডেশনের বাংলাদেশ কান্ট্রি ডিরেক্টর কে এম জাহিদুজ্জামান বলেন, হসপিটালটির প্রতিষ্ঠাকাল থেকেই মানবসেবায় কাজ করে যাচ্ছে। হোপ হসপিটাল মাতৃ ও শিশু স্বাস্থ্য সেবার পাশাপাশি এ ধরনের বিভিন্ন ক্যাম্প আয়োজন করে আসছে। তন্মধ্যে প্রসবজনিত ফিস্টুলা ফ্রি চিকিৎসা, ঠোঁট কাটা, তালু ফাটা রোগীর ফ্রি চিকিৎসা, ফ্রি মেডিক্যাল ক্যাম্প আয়োজনের মাধ্যমে দরিদ্র রোগীর সেবা প্রদান উল্লেখযোগ্য।

২০১৩ সাল থেকে শুরু করে এ পর্যন্ত অত্র হসপিটালটি প্রায় ৩০০জন আগুনে পোড়া রোগীর চিকিৎসা প্রদান করেছে। এ বছরও প্রায় ৫০ জন আগুনে পোড়া রোগী প্লাস্টিক সার্জারির সুযোগ পাবে বলে আশা করা যায়। উল্লেখ্য যে, ইতিমধ্যেই হোপ হসপিটালটি স্বাভাবিক প্রসব/ডেলিভারীর জন্য অত্র এলাকায় যথেষ্ঠ সুনাম অর্জন করেছে।

প্রসঙ্গতঃ হোপ ফাউন্ডেশন ১৯৯৯ সাল থেকে কক্সবাজার জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী কক্সবাজারের কৃতিসন্তান জনাব ডাঃ ইফতিখার উদ্দিন মাহমুদ (মিনার) এই হোপ ফাউন্ডেশনটি প্রতিষ্ঠা করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •