ইমাম খাইর, সিবিএন
মানুষ এত বিপুল সহায় সম্পদ নিয়ে কি করবে? এত টাকা কি দরকার? আমার নিজের কোন পকেট নেই। শার্টের সামনেও নেই, দেখেন।
রবিবার (১মার্চ) দুপুরে লবণ উৎপাদন ও বর্তমান বাজার পরিস্থিতি নিয়ে জেলা বিএনপি’র কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদিক সম্মেলনে জেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান চৌধুরী এসব কথা বলেন।
এ সময় সাবেক এই সংসদের প্যান্টের পেছনেও পকেট নেই বলে উপস্থিত সাংবাদিকদের ঘুরে-ফিরে দেখান।
নিয়মিত পকেটওয়ালা শার্ট-প্যান্ট পরলেও কাকতালীয়ভাবে সংবাদ সম্মেলনের দিন পকেটবিহীন শার্ট ও প্যান্ট পরে আসেন বিএনপির সাবেক এই এমপি।
বর্তমান সরকারের দুর্নীতিবাজ মন্ত্রী-এমপিদের সমালোচনা করে জেলা বিএনপি’র সভাপতি বলেন, ‘কক্সবাজারকে ঘিরে সরকারের যে মেগা প্রকল্প গুলোর কথা বলা হচ্ছে, আসলে মেগা প্রকল্প মানে কি? বিভিন্ন রঙের রঙ? নাকি অন্যকিছু? বর্তমান সরকার পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে দাবী করে হোটেল মোটেল জোনের অনেক প্লট বাতিল করেছে সরকার। অন্যদিকে মাতারবাড়িতে পরিবেশ বিধ্বংসী কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ করছে। এ কেমন কর্মকান্ড?
তিনি বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পের নামে সরকারই দেশের পরিবেশ ধ্বংস করছে। নেতাদের হাতে একে একে সব তুলে দিচ্ছে। ঢাকা, নারায়ণগঞ্জকেন্দ্রিক একটি সিন্ডিকেটকে আশ্রয় প্রশ্রয় দেয়ায় লবণশিল্প ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। দেশকে পুলিশী রাষ্ট্র বানিয়ে ফেলা হয়েছে। দেশ হবে শুধু শেখ বংশের। অন্য কারো কথা বলার সুযোগ থাকবে না।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন-জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি ও কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এটিএম নুরুল বশর চৌধুরী, সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান চৌধুরী খোকন মিয়া।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন -জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক জামিল ইব্রাহিম চৌধুরী, দপ্তর সম্পাদক ইউসুফ বদরী, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি অধ্যাপক আজিজুর রহমান, সদর উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আব্দুল মাবুদ, মহেশখালী উপজেলা বিএনপির সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল হক, কেন্দ্রীয় যুবদলের সদস্য এম. মোক্তার আহমদ, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আমীর আলী, ঈদগাঁও সাংগঠনিক উপজেলা বিএনপির সভাপতি মোঃ শফিউল আলম, জেলা বিএনপি’র ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রাশেদুল হক রাসেল, জেলা ছাত্রদলের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোঃ সরওয়ার রোমন, সাবেক ছাত্রনেতা আবছার কামাল, মহেশখালী বিএনপি নেতা আকতার হোসাইন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •