মমতাজ উদ্দিন আহমদ, আলীকদম (বান্দরবান)
প্রত্যেক শিশু শিক্ষার্থীর হাতে একটি ফুল আর স্কুল ব্যাগ। মাথায় বিদ্যালয়ের নামাঙ্কিত কাগজের টুপি! কোমলমতি এসব শিশুদের চোখেমুখে পাওয়ার আনন্দরাশি। ব্যাগ আর ফুল হাতে যেন শিশুগুলোর স্বপ্ন অভিযাত্রা! এ চিত্র আলীকদম উপজেলার অসথু ত্রিপুরা পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশুবরণ অনুষ্ঠানের। এ বিদ্যালয়টি অতিশয় দরিদ্রপ্রবণ এলাকায় অবস্থিত। এসব শিশুদের কাছে স্কুল ব্যাগ ছিল এতদিন সোনার হরিণ!

বৃহস্পতিবার দুপুরে ১২৫ জন শিক্ষার্থীর হাতে ফুল আর স্কুল ব্যাগ তুলে দিয়ে মহানূভবতার অনন্য নজির স্থাপন করেছেন থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী রকিব উদ্দীন ও সেকেন্ড অফিসার নুর ইসলাম। শিশু বরণ উৎসবের সুচারূ ও বর্ণিল আয়োজনটি করেন বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক জয়নব আরা বেগম।

এসমসি সভাপতি ওসমান গণীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত শিশু বরণ অনুষ্ঠানে প্রধান ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ শাহেদ ইকবাল। উদ্বোধক ছিলেন থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী রকিব উদ্দীন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার ইসকান্দার নুরী, সহকারি ইউআরসি ইনস্ট্রাক্টর মোহাম্মদ আলমগীর, সহকারি প্রোগ্রামার মৃন্ময় দাস ও কাঠ ব্যবসায়ী মোজাফফর আহাম্মদ।

অসুথ ত্রিপুরা পাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি উপজেলা সদর থেকে ৫ কিলোমিটার দূরে আশ্রায়ন প্রকল্প এলাকায়। এলাকাটি দরিদ্রপ্রবণ ও বাঙ্গালী, ত্রিপুরা, চাকমা ও তঞ্চঙ্গ্যা অধ্যুষিত। অস্বচ্চল অভিভাবকরা এতদিন কোন শিক্ষার্থীর হাতে এ যাবৎকাল স্কুল ব্যাগ দিতে পারেননি। ২৭ ফেব্রুয়ারি এ বিদ্যালয়ে ‘শিশু বরণ উৎসবে’ থানার ওসি কাজ রকিব উদ্দীন প্রত্যেক শিক্ষার্থীর হাতে স্কুল ব্যাগ দেওয়ার কথা জানান সংশ্লিষ্ট প্রধান শিক্ষককে। ওসির এ মহতি উদ্যোগকে সফল করতে সার্বিক সহযোগিতার হাত বাড়ান সেকেন্ড অফিসার নুর ইসলাম।

প্রাথমিক শিক্ষা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানান, কোনো বিদ্যালয়ে শিশু বরণ উৎসব এই প্রথম অনুষ্ঠিত হলো আলীকদমে। ব্যক্তিপর্যায়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল ব্যাগ বিতরণও প্রথম। সুন্দর একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে স্কুল বিতরণের আয়োজন করায় প্রধান শিক্ষকের ভূয়সী প্রশংসা করেন অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথিরা।

উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালে স্থাপিত এ বিদ্যালয়টি ছিল পিছিয়া থাকা বিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম। কিন্ত গত দেড়বছর পূর্বে বিদ্যালয়টিতে যোগদান করে আমুল পরিবর্তন এনেছেন বিদ্যালয়টির বর্তমান প্রধান শিক্ষক জয়নব আরা বেগম। তিনি মাল্টিমিডিয়া কনটেন্ট প্রতিযোগিতায় জাতীয় পর্যায়ে সেরাদশের একজন। গ্লোবাল লার্নিং ও স্টাডি ট্যুরে সফর করেন লণ্ডসহ কয়েকটি দেশ।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ইউএনও এ বিদ্যালয়ে শ্রীঘ্রই শিশুদের জন্য দোলনা স্থাপন করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। উপজেলা শিক্ষা অফিসার বলেছেন, বিদ্যালয়টির বর্তমান অগ্রগতি দেখে তিনি সন্তুষ্ট। সকল কাজে তিনি সার্বিক সহযোগিতা দিয়ে যাবেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •