মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার বদর মোকাম জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাবেক সভাপতি ও বিশিষ্ট সমাজসেবক আলহাজ্ব নুরুল হুদা চৌধুরীর (প্রকাশ-নুরুল হুদা মিয়া) প্রথম নামাজে জানাজা চট্টগ্রাম শহররের চট্টেশ্বরী জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে শুক্রবার ২৮ ফেব্রুয়ারী মাগরিবের নামাজের পর এবং দ্বিতীয় নামাজে জানাজা শনিবার ২৯ ফেব্রুয়ারী আসরের নামাজের পর কক্সবাজার শহরের ঈদগাহ ময়দানে অনুষ্ঠিত হবে। বিষয়টি মরহুম আলহাজ্ব নুরুল হুদা চৌধুরীর কনিষ্ঠ ভ্রাতা আলহাজ্ব রফিকুল হুদা চৌধুরী সিবিএন-কে নিশ্চিত করেছেন। চট্টগ্রাম শহররের চট্টেশ্বরী জামে মসজিদে প্রথম নামাজে জানাজা শেষে মরহুম আলহাজ্ব নুরুল হুদা চৌধুরীর মৃতদেহ কক্সবাজার নিয়ে আসা হবে।

আলহাজ্ব নুরুল হুদা চৌধুরী (৮৬) শুক্রবার ২৮ ফেব্রুয়ারী বেলা ১ টার দিকে চট্টগ্রাম শহরের পার্কভিউ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। (ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্না ইলাইহি রাজিউন)। গত ১৯ জানুয়ারি থেকে আলহাজ্ব নুরুল হুদা চৌধুরী উক্ত হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

আলহাজ্ব নুরুল হুদা চৌধুরী কক্সবাজার শহরের বদরমোকাম নিবাসী মরহুম আবদুল ওদুদ ও মরহুমা শহর বানু’র জ্যেষ্ঠ পুত্র। কক্সবাজার জেলা বিএনপি’র সহ-সভাপতি আলহাজ্ব রফিকুল হুদা চৌধুরী, জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব একরামুল হুদা চৌধুরী ও সাবেক কাস্টমস কমিশনার শামশুল হুদা চৌধুরী বড় ভাই। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ পুত্র ও ৩ কন্যা রেখে যান।
কক্সবাজারের প্রবীণ এই মুরব্বি দীর্ঘদিন ধরে বাধর্ক্যকনিত কারণে অসুস্থ থাকায় দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। অবশেষে মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শক্রমে আইসিইউতে নেয়া হয়।

আলহাজ্ব নুরুল হুদা চৌধুরী রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সাবেক সভাপতি, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সহসভাপতি হিসাবে অনেক দিন দায়িত্ব পালন করেন। তিনি একজন ভাষা সৈনিক ছিলেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •