বিনোদন ডেস্ক:
বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা সালমান শাহ হত্যাকাণ্ডের শিকার হননি, তিনি পারিবারিক কলহের জেরে আত্মহত্যা করেছিলেন বলে জানিয়েছে তদন্ত সংস্থা পিবিআই।

সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে সংবাদ সম্মেলন করে এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন তুলে ধরে এমন তথ্য জানান পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) প্রধান বনজ কুমার মজুমদার।

সেখানে বলা হয়েছে, ব্রিফিংয়ে সালমান হত্যায় ঘুরে ফিরে নায়িকা শাবনূরের প্রসঙ্গ আসে। সালমানের স্ত্রী সামিরার উদ্ধৃতি দিয়ে পিবিআই জানিয়েছে, শাবনূরের সঙ্গে সালমানের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল আর সালমান তাকে বিয়েও করতে চেয়েছিলেন। সেসব নিয়েই স্ত্রী সামিরার সঙ্গে ঝামেলা তৈরি হয়েছিল। যে কারণে আবেগের বশবর্তী হয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেন সালমান।

এদিকে পিবিআইয়ের এই প্রতিবেদনের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন অভিনেত্রী শাবনূর। তিনি বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। সেখান থেকে গণমাধ্যমে নিজের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

শাবনূর বলেন, ‘কেন এখানে আমার নাম জড়ানো হচ্ছে জানি না। সালমান যদি আত্মহত্যাও করে, তাহলে আমার কারণে কেন করবে! একজন মৃত মানুষের সঙ্গে আমাকে জড়িয়ে কথা বলাটা খুব বিশ্রী মনে হয়েছে। যারা আমার নাম জড়াচ্ছেন বা জড়ানোর চেষ্টা করছেন আমি তার ঘোর বিরোধিতা করছি।

আমি সবসময় যা বলেছি এখনো তাই বলবো, সালমান শুধুই আমার নায়কই ছিল। এর বাইরে সে আমাকে তার ছোট বোনের মতো আদর করতো। তাকে আমি ভাইয়ের মতো শ্রদ্ধা করতাম।’

একজন মৃত মানুষকে নিয়ে এত বছর পর এরকম বিশ্রী কথা বলার মনমানসিকতা খুব খারাপ দাবি করে শাবনূর আরও বলেন, ‘সালমানের স্ত্রীর সঙ্গেও আমার একটা ভালো সম্পর্ক ছিল। সালমানের স্ত্রী সব সময় আমাদের সঙ্গেই থাকত। প্রেমের সম্পর্কের কিছু একটা যদি হতো, এটা তখন সবাই বুঝতে পারত।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •