হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ
টেকনাফ পুলিশের সাথে গোলাগুলিতে মানবপাচারে জড়িত আব্দুস সালাম (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছে।
নিহত যুবক উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়ন নোয়াখালী জুম্মাপাড়া এলাকার হাকিম আলীর পুত্র।
এসসয় পুলিশের তিন সদস্য আহত এবং ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করা হয়েছে অস্ত্র ও গুলি।
টেকনাফ মডেল থানার (ওসি) প্রদীপ কুমার দাশ জানান, রবিবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে গোপন সংবাদের তথ্য অনুযায়ী বাহারছড়া ইউনিয়ন নোয়াখালী পাড়া মেরিনড্রাইভ সড়ক সংলগ্ন এলাকায় পুলিশের একটি দল মানবপাচার বিরোধী অভিযানে যায়। এসময় মানব পাচারকারীরা পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে এলোপাতাড়ী গুলিবর্ষণ শুরু করে।
এতে পুলিশের ২/৩ জন সদস্য আহত হয়। এরপর আত্মরক্ষার্থে পুলিশ সদস্যরাও পাল্টা গুলি চালালে অপরাধীরা সু-কৌশলে পালিয়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আসার পর ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ সদস্যরা গুলিবিদ্ধ অবস্থায় এক যুবককে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।
পুলিশের দাবী সে দীর্ঘদিন ধরে ঘৃর্ণ্য মানব পাচার কাজে জড়িত ছিল।
এদিকে ঘটনাস্থল তল্লাশী করে দেশীয় তৈরী একটি অস্ত্র, ৬ রাউন্ড তাজা কার্তুজ, ২ রাউন্ড খালীখোসা উদ্ধার করা হয়েছে।
ওসি আরো বলেন, যারা আবারও টেকনাফ উপকূল ব্যবহার করে অবৈধ পথে মানবপাচার করার জন্য অপচেষ্টায় লিপ্ত রয়েছে। সেই সমস্ত অপরাধীদের নির্মুল করার জন্য পুলিশের এই কঠোর অভিযান অব্যাহত থাকবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •