মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের এলএ শাখার (ভূমিহুকুম দখল শাখা) ঘুষ দৌরাত্ম্যে অভিযুক্ত ৩ সার্ভেয়ার চাকুরী থেকে বরখাস্ত হচ্ছেন রোববার ২৩ ফেব্রুয়ারী। ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে তাদের বরখাস্ত করা হবে। ভূমি মন্ত্রণালয়ের বিশ্বস্ত একটি সুত্র সিবিএন-কে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, জেলা প্রশাসনের এলএ শাখার ঘুষ দৌরাত্ম্যে অভিযুক্ত ৩ সার্ভেয়ারের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নিয়েছেন-এমন প্রশ্নের জবাবে কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন সিবিএন-কে জানান, বিভিন্ন জেলা ও দপ্তর থেকে এসব সার্ভেয়ারকে কক্সবাজার জেলা প্রশাসনে নিয়োগ দেওয়া হয়েছিলো। তাই অভিযুক্ত ৩ সার্ভেয়ারের বিরুদ্ধে তাদের নিয়োগ কর্তৃপক্ষ ভূমি মন্ত্রণালয় থেকেই ব্যবস্থা নিতে হবে। কক্সবাজার জেলা প্রশাসন থেকে তাদের বিষয়ে বিস্তারিত প্রাথমিক প্রতিবেদন ইতিমধ্যে ভূমি মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। রোববার ২৩ ফেব্রুয়ারী তাদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা সহ চুড়ান্ত প্রতিবেদন প্রেরণ করা হবে। প্রতিবেদনের ভিত্তিতে ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে তাদেরকে বরখাস্ত করা সহ অন্যান্য এ্যাকশন নেবেন।

প্রসংগত, ঘুষের টাকা সহ র‍্যাব-১৫ এর কক্সবাজার ক্যাম্প কর্তৃক কক্সবাজার জেলা প্রশাসনের ভূমি হুকুম দখল শাখার সার্ভেয়ার মোহাম্মদ ওয়াসিম খানকে শহরের বাহারছরা বাসা থেকে ৬ লাখ নগদ টাকা সহ ধৃত, একই শাখার সার্ভেয়ার কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলার খানবাড়ি বাড়ি বানিগ্রামের ময়নাল খান ও আয়েশা বেগমের পুত্র মোঃ ফেরদৌস খানের তারাবনিয়ার ছরা বাসা থেকে ২৭ লাখ ঘুষের অর্থ ও পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার আবু বকর সরকারের পুত্র সার্ভেয়ার মোঃ ফরিদ উদ্দিনের বাহারছরার বাসা থেকে ৬৬ লাখ ৭৫ হাজার ৫শ’ ৫০ ঘুষের টাকা উদ্ধার করা হয়। বুধবার ১৯ ফেব্রুয়ারী বিকেলে র‍্যাব-১৫ এর অধিনায়ক মেজর মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে পৃথক ৩ টি অভিযানে প্রায় ৯৪ লক্ষ ঘুষের টাকা, ১৫ লক্ষ টাকার ৪ টি চেক ও কিছু মূল্যবান নথি উদ্ধার করা হয়। এসময় সার্ভেয়ার মোহাম্মদ ওয়াসিম খানকে হাতেনাতে আটক করা হয়। বাসা থেকে ঘুষের টাকা উদ্ধারের পর সার্ভেয়ার মোঃ ফেরদৌস খান ও সার্ভেয়ার ফরিদ উদ্দিন তখন থেকে পলাতক রয়েছে।

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার ২০ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যায় র‍্যাব-১৫ এর কক্সবাজার ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার মোঃ হারুনর রশিদ বাদী হয়ে দুর্নীতি দমন আইন, যাহা ১৮৬০ সালের ফৌজদারি দন্ডবিধির ৪০৯/১৬১/১০৯/৩৪ ধরায় পটুয়াখালীর বউফল উপজেলার দলিল উদ্দিন খান ও মরিয়ম বেগমের পুত্র সার্ভেয়ার মোঃ ওয়াসিম খানকে ধৃত আসামী আসামী দেখিয়ে এবং সার্ভেয়ার মোঃ ফয়সাল খান ও সার্ভেয়ার মোঃ ফরিদ উদ্দিনকে পলাতক আসামী উল্লেখ করে আরো ৪/৫ জন অজ্ঞাত আসামী দিয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি এজাহার দায়ের করেন। একইসাথে সার্ভেয়ার মোঃ ওয়াসিম খানকে সদর মডেল থানা কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করেন। এজাহারটি দুর্নীতি দমন কমিশন আইনে হওয়ায় থানা কর্তৃপক্ষ অভিযোগটি মামলা আকারে নেওয়ার কোন এখতিয়ার নেই।

এগুলো ছিলো টক অব দ্যা উইক। এ অবস্থায় ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এমপি কক্সবাজার সফরে আসলেন শনিবার ২২ ফেব্রুয়ারী। রোববার ২৩ ফেব্রুয়ারী কক্সবাজার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের শহীদ এটিএম জাফর আলম সিএসপি সম্মেলন কক্ষে বেলা ১২ টায় জেলা রাজস্ব সম্মেলনে ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী এমপি প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন। এ রাজস্ব সভায় কি হয়, তা নিয়ে জেলাবাসীর জল্পনা কল্পনার কোন শেষ নেই।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •