সংবাদ বিজ্ঞপ্তি :

মানুষ, প্রাণী এবং পরিবেশকে রক্ষা করতে হলে পলিথিন ও একবার ব্যবহার্য প্লাস্টিকের (ওয়ান টাইম) ব্যবহার এখনই বন্ধ করতে হবে, কারণ পলিথিন ও প্লাস্টিক সাগর-নদীর তলদেশে জমা হওয়ার কারণে মাটি,পানি,প্রতিবেশ,জীববৈচিত্র্য ও সামুদ্রিক জীবের ক্ষতি করে এবং যেসব প্লাস্টিক পুনরায় ব্যবহারের অনুপযোগী তা মারাত্বকভাবে পরিবেশ দূষণ করে; মাটিতে প্লাস্টিক যুক্ত হওয়ার কারণে বর্জ্যের ব্যবস্থাপনা আরো ব্যয়বহুল হয়। প্লাস্টিক ব্যবহার জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি তৈরী করে এবং প্রজনন ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ধ্বংস করে, শ্বাস-প্রশ্বাসের অসুবিধা এবং ক্যানসারের কারণ হিসাবে দেখা দেয়। শুক্রবার (২১ ফেব্রুয়ারী) বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) ও ইয়ুথ এনভায়রনমেন্ট সোসাইটি (ইয়েস) কক্সবাজার আয়োজিত পলিথিন ও ওয়ান টাইম প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধে এক সচেতনতামুলক সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

ইয়ুথ এনভায়রনমেন্ট সোসাইটি (ইয়েস) কক্সবাজার এর উপদেস্টা ও কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সিনিয়র আইনজীবি রমিজ আহমেদ এর সভাপতিত্বে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের বালিয়াড়িতে অনুষ্ঠিত এসভায় বক্তারা বলেন, এক কেজি প্লাস্টিক উৎপাদনে প্্রায় দুই থেকে তিন কেজি পরিমাণ কার্বন ডাই-অক্সাইড নির্গত হয় যা বৈশ্বিক উঞ্চায়নে ভূমিকা রাখে। এছাড়াও অপচ্য প্লাস্টিকের আয়ু ৫০০ বছরের কম নয়। এসময়ের মধ্যে একপর্যায়ে প্লাস্টিক ভেঙ্গে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণায় পরিণত হয়। এ ক্ষুদ্র কণাকে বলা হয় মাইক্রোপ্লাস্টিক। এ মাইক্রোপ্লাস্টিক খাদ্যচক্রে প্রবেশ করে মানুষের দেহে ঢুকে স্বাস্থ্যঝুঁকি বাড়াচ্ছে।

ইয়ুথ এনভায়রনমেন্ট সোসাইটির (ইয়েস) কক্সবাজার এর প্রধান নির্বাহী ইব্রাহিম খলিল উল্লাহ মামুনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত এসভায় বক্তব্য রাখেন- সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজারের সাধারণ সম্পাদক আনছার হোসেন, কক্সবাজারে কর্মরত বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা (এনজিও) কোস্ট-ট্রাস্ট এর পরিচালক মকবুল আহমেদ, আমরা কক্সবাজারবাসী সংগঠনের সমন্বয়ক নাজিম উদ্দিন, দৈনিক সকালের কক্সবাজার পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক মুহসীন শেখ, দৈনিক সাগরদেশ এর সম্পাদক মোস্তফা সরওয়ার, বাংলাদেশ নদী পরিভ্রাজক দলের যুগ্ন-সম্পাদক ইসলাম মাহমুদ, কক্সবাজার সিটি কলেজের অধ্যাপক রোমেনা আকতার, কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের আইনজীবি শাহ আলম প্রমুখ। সভায় সিভিল সোসাইটির প্রতিনিধি, আইনঝীবি,সাংবাদিক,এনজিও কর্মকর্তা,ব্যবসায়ি ও পর্যক মিলে অর্ধমত লোক অংশনেন।

সচেতনতামুলক আলোচনা সভা শেষে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) ও ইয়ুথ এনভায়রনমেন্ট সোসাইটি (ইয়েস) কক্সবাজার এর পক্ষ থেকে পলিথিন ও একবার ব্যবহার্য প্লাস্টিকের (ওয়ান টাইম) ব্যবহার বন্ধে ব্যবসায়ি ও পর্যটকদের কাছে প্রচারপত্র (লিফলেট) বিলি করা হয়।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •