আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
পাকিস্তানের বিরুদ্ধেই আন্দোলন-যুদ্ধ করে অর্জিত হয়েছে বাঙালির অধিকার বাংলা ভাষা। বাঙালির এ অর্জনকে স্বীকৃতি দিয়েছিল জাতিসংঘ। জাতিসংঘের ঘোষণা অনুযায়ী, গত বেশ কয়েক বছর ধরে সারা পৃথিবীতেই ২১শে ফেব্রুয়ারি দিনটিকে পালন করা হচ্ছে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে।

কিন্তু ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারিতে যে দেশটির সরকারের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে মাতৃভাষা বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে ফুঁসে উঠেছিল তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের মানুষরা, সেই পাকিস্তানে কি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত হয়? হলেও কীভাবে হয়?

বিবিসির এক প্রতিবেদনে করাচির একজন সাংবাদিকের বরাত দিয়ে উল্লেখ করা হয়, ‘কাগজে-কলমে পাকিস্তানে ভালোভাবেই ২১শে ফেব্রুয়ারি ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ হিসেবে উদযাপন করা হয়।’

করাচি, ইসলামাবাদ ও লাহোরে ঘটা করেই পালন করা হয় এ দিবসটি। কিছু সেমিনার হয়। কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ে কিছু আলোচনাও হয়। কোনো কোনো প্রভাত ফেরীর আয়োজনও ক্ষেত্রে।

২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারির ১৮ ও ১৯ তারিখে একটি সাহিত্য উৎসবও হয়েছে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়।

তবে ২১শে ফেব্রুয়ারি কেন প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল এবং ৫২ সালের সেই দিনে কী ঘটেছিল এ বিষয়ে পাকিস্তানের সাধারণ মানুষের এবং স্কুল কলেজের ছাত্র-ছাত্রীদের স্বচ্ছ ধারণা নেই। দেশটির পাঠ্যক্রমেও এ বিষয়ক পূর্ণ ইতিহাসের অনুপস্থিতি রয়েছে।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •