জহির খন্দকার , ঈদগড় :

রামু উপজেলার ঈদগড় ইউনিয়নের ড্রাইভার রুবেল ও তার এক হেলপার পাচারকালে ১২ হাজার ইয়াবাসহ নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানা পুলিশের হাতে আটক হয়েছে।গত ২ ফেব্রুয়ারী ভোর রাতে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। বিষয়টা রামু থানায় অনুসন্ধানে এলে এতদিন পর এলাকায় জানাজানি হয় ।
জানা যায়, ঈদগড় ইউনিয়নের ৮ নং ওয়ার্ডের কোদালিয়াকাটা গ্রামের মৃত মোহাম্মদ ইসলামের পুত্র আজিজ করিম ওরফে রুবেল ড্রাইভার (৩৫) ও তার হেলপার ঈদগাঁও নাইপেরঘোনা এলাকার মোকতার আহাম্মদের ছেলে হামিদুল হক (৩১) দীর্ঘ দিন থেকে মাইক্রোবাসে করে টেকনাফ থেকে বোঝাই করে চট্টগ্রাম ঢাকাসহ দেশেের বিভিন্ন স্থানে চিংড়ি মাছের পোনা সরবরাহ করে আসছিল।চিংড়ি মাছের পোনা সররাহের আড়ালে তারা যে ইয়াবা পাচার করত এমন অভিযোগ থাকলেও তারা কখনও ধরা পড়েনি।গত ২ ফেব্রুয়ারী ভোর রাতে নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার ওসি তদন্ত ইন্সপেক্টর মোঃ দুলাল মিয়ার নেতৃত্বে একদল পুলিশ পৌর এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে চিংড়ি মাছের পোনা বহনকারী মাইক্রোবাস আটকায় এবং তল্লাশী চালিয়ে ১২ হাজার ইয়াবাসহ রুবেল ড্রাইভার ও তার হেলপার হামিদুল হককে আটক করে।তাদের ব্যবহৃত গাড়ীটি জব্দ করা হয়েছে। আজিজ করিম রুবেল ও হামিদুল হকের বিরুদ্ধে চাটখিল থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্র আইনে মামলা রুজু করে তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।
আটকের পর মামলা রুজু করে চাট খিল থানা থেকে রামু থানায় অনুসন্ধানী স্লীপ পাঠানো হলে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়।রামু থানার এ এস আই মোরশেদ আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •