জে.জাহেদ, চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী বর্তমান মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনকে নিয়ে বৃহস্পতিবার (২০ ফেব্রুয়ারি) প্রয়াত মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর বাসায় গেলেন। এদিন নাছিরসহ নগর আওয়ামী লীগের নেতাদের নিয়ে চট্টগ্রামের প্রয়াত নেতাদের কবরে গিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন রেজাউল। গত শনিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) মনোনয়ন ঘোষণার পর বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রেজাউল করিম চৌধুরী চট্টগ্রামে আসেন। নগরীর পুরাতন রেলস্টেশন চত্বরে রেজাউল করিমকে দেওয়া সংবধর্নায় ছিলেন না মনোনয়ন বঞ্চিত নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। এ নিয়ে নানা আলোচনার মধ্যেই বৃহস্পতিবার দুপুরে রেজাউলের সঙ্গে চশমাহিলে প্রয়াত মহিউদ্দিনের বাসায় যান আ জ ম নাছির উদ্দীন। এ সময় তাকে হাস্যোজ্জ্বল অবস্থায় দেখা গেছে। নগর আওয়ামী লীগের আইনবিষয়ক সম্পাদক শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী জানান, মেয়রপ্রার্থী রেজাউল করিম চৌধুরী বৃহস্পতিবার সকালে দিনের কর্মসূচি শুরু করেন প্রয়াত নেতাদের কবর জিয়ারতের মধ্যে দিয়ে। প্রয়াত নেতাদের মধ্যে জহুর আহমদ চৌধুরী, এম এ আজিজ, এম এ মান্নান, সিরাজুল হক মিয়া, ইসহাক মিয়া, আতাউর রহমান খান কায়সার, এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী এবং কাজী ইনামুল হক দানুর কবরে গিয়ে তিনি শ্রদ্ধা জানান। তিনি আরও জানান, জহুর আহমদ চৌধুরীর কবর জিয়ারতের পর তার সন্তান নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর বাসায় গিয়ে কুশল বিনিময় করেন। জহুর আহমদ চৌধুরী, এম এ মান্নান এবং এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর কবর জিয়ারতের সময় মেয়র নাছিরও তার সঙ্গে ছিলেন। দুপুরে রেজাউল ও নাছিরসহ নগর আওয়ামী লীগের নেতারা প্রথমে মহিউদ্দিনের বাসায় যান। সেখানে মহিউদ্দিনের স্ত্রী নগর মহিলা লীগের সভাপতি হাসিনা মহিউদ্দিনের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। এরপর মহিউদ্দিনের কবরে রেজাউল শ্রদ্ধা জানান। রেজাউলের সঙ্গে নগর আওয়ামী লীগের নেতাদের মধ্যে ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, আবদুচ ছালাম, শফিক আদনান, শফিকুল ইসলাম ফারুক, ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, চন্দন ধর, শহীদুল আলমও ছিলেন। সকালে মনোনয়নবঞ্চিত আরেক নেতা নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজনও মহিউদ্দিনের কবর জিয়ারত করেন এবং বাসায় যান। তবে রেজাউল সেখানে পৌঁছানোর আগে তিনি চলে যান বলে নেতারা জানিয়েছেন। ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী বলেন, ‘মহিউদ্দিন ভাইয়ের বাসায় আমরা কিছু প্রয়োজনীয় আলাপও সেরে নিয়েছি। সিদ্ধান্ত হয়েছে, খুব শিগগিরই নগর আওয়ামী লীগের সভা ডেকে নেতাদের মধ্যে দায়িত্ব বণ্টন করা হবে। নির্বাচনের সার্বিক প্রস্তুতি নিয়ে সেখানে আলোচনা হবে। এছাড়া কেন্দ্রের নির্দেশনা কি আছে, সেটাও আমরা দেখব। আমাদের সাধারণ সম্পাদক নাছির ভাই বলেছেন, ঐক্যবদ্ধভাবে সর্বশক্তি নিয়ে আমরা রেজাউল করিম ভাইয়ের জন্য কাজ করব এবং উনাকে জিতিয়ে আনব।’ আগামী ২৯ মার্চ চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •