হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ
টেকনাফের হ্নীলায় সরকারী আশ্রয়ন প্রকল্পের অসহায়-গরীব জনসাধারণের ১০ বসতবাড়ি আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে আনুমানিক ১৫-২০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।
১৮ ফেব্রুয়ারী ভোররাত ৩টারদিকে উপজেলার হ্নীলা রসুলাবাদ এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।
আশ্রয়ন প্রকল্পের পাশে আজিজুল হকের দোকান থেকে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত হয় বলে স্থানীয়রা ধারণা করছে।
ভোর ৪টার দিকে খবর পেয়ে টেকনাফ ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রণ করে। ফায়ার সার্ভিস ঘটনাস্থলে আসার পূর্বে এক ঘন্টার আগুনে আজিজুল হক, ইব্রাহীম, ফরিদা বেগম, বুলবুলি, ছবুরা খাতুন, জাহাঙ্গীর, হামিদ, ছৈয়দ হোছন, বাদশাসহ ১০ বসত-ঘর পুড়ে ছাঁই হয়ে যায়। কেউ বাড়ি-ঘরের আসবাবপত্র পর্যন্ত বের করতে পারেনি বলে জানায় ক্ষতিগ্রস্থরা। এতে আনুমানিক ১৫ হতে ২০ লক্ষ টাকার আসবাব পত্রের ক্ষতি সাধিত হয়েছে।
গভীর রাতে অগ্নিকান্ডের উৎস সম্পর্কে কেউ না জানলেও আশ্রয় কেন্দ্রের পাশে আজিজুল হকের দোকানের কয়েলের আগুন হতে এই অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত বলে ধারণা করছে স্থানীয়রা।
সকালে এই অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী, স্থানীয় মেম্বার হোছন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ক্ষতিগ্রস্থদের খোঁজ-খবর নেন। এই ব্যাপারে হ্নীলা ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্থদের সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন।
হ্নীলা ইউপি চেয়ারম্যান রাশেদ মাহমুদ আলী জানান, ১৯৯৮সালের দিতে তৈরী করা এই আশ্রয়ন প্রকল্প এখন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। তা মেরামত ও সংস্কারের জন্য সরকারের উর্ধ্বতন মহলের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
ক্ষতিগ্রস্থরা এখন খোলা আকাশের নিচে স্বপরিবারে অবস্থান করছেন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •