এম.আবুহেনা সাগর,ঈদগাঁও :

জেলার বৃহৎ বানিজ্যিক কেন্দ্র ঈদগাঁও বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে বাজারজুড়ে উৎসবে পরিণত হয়ে পড়েছে। দীর্ঘবছর পর হলেও কল্পনা ঝল্পনার অবসান ঘটিয়ে ২৮ ফ্রেরুয়ারীর বাজার কমিটির নির্বাচনে ছয়টি পদের প্রার্থীরা নির্ঘুম প্রচারনা শুরু করে দিয়েছেন। মাঠে নেমেছেন বাজারের নবীন-প্রবীন ব্যবসায়ীরা। সবাই যেন বিজয়ের স্বপ্ন নিয়ে ঈদগাঁও বাজারকে পরির্বতনের অঙ্গি কারে অলিগলিসহ দোকানপাঠে হরদম প্রচারনা,গনসংযোগ আর ব্যবসায়ীদের কাছে ভোট প্রার্থনায় চষে বেড়াচ্ছেন। প্রার্থীর পাশা পাশি তাদের নিকটাত্বীয় স্বজনরাও ভোটের মাঠে সময় ব্যয় করে যাচ্ছেন। হার-জিত বলে কথা। ভোরবেলা শুরু করে নিশিরাত অবদি পর্যন্ত জনপ্রিয়তা ধরে রেখে প্রচারনা যেন তুঙ্গে রয়েছে। ছুটে চলছে ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। কে হবে এ বাজারের নির্বাচিত কর্ণধার এমন প্রশ্নে হিমশিম খাচ্ছে ব্যবসায়ীসহ গোটা ঈদগাঁওবাসী। কাঙ্খিত দিন ২৮ ফ্রেরুয়ারীর দিকে তাকিয়ে আছে ব্যবসায়ীসহ সর্বশ্রেনী পেশার লোকজন। ঈদগাঁও বাজারে এবারের নির্বাচনে সভাপতি পদে তিনজনই পরিচিতিমুখ। শাহনেওয়াজ চৌধুরী মিন্টু, সেলিম মোর্শেদ ফরাজী,আরিফুর রহিম। প্রচারনায় চেয়ার প্রতীক নিয়ে শাহনেওয়াজ মিন্টু এগিয়ে থাকলেও চশমা প্রতীকের সেলিমকে কিন্তু উড়িয়ে দেওয়া যায়না। নিরবে নিবৃতে ভোটের মাঠে চষে বেড়াচ্ছেন আনারস প্রতীক নিয়ে আরিফ। তবে দ্বিমুখী লড়াইয়ের আভাস পাওয়া যাচ্ছে বাজার ঘুরে।

বাজার ব্যবসায়ী কমিটির নির্বাচনের দিনক্ষন যতই ঘনিয়ে আসছে, ততই ব্যবসায়ীদের মাঝে উৎসাহ উদ্দিপনা বেড়েই চলছে। নির্বাচনে সভাপতি পদে প্রার্থীরা ইতিমধ্যে ব্যবসায়ীদের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রেখে চলছেন। বাজারকেন্দ্রিক নানান সংগঠনের সাথে বৈঠকসহ হিসেব নিকেশ মেলাচ্ছেন। এমনকি চুলচেঁড়া বিশ্লেষন করে জয়ের ধারপ্রান্তে আসতে ভোটের অংক মিলাতে শুরু করছেন তারা।

সূত্র মতে,২০০৫ সালে নির্বাচনের দীর্ঘ ১৫ বছর পরে নির্বাচন হচ্ছে ঈদগাঁও বাজারে। অব্যবস্থাপনা দৈনিক ব্যবসায়ীক লেনদেনসহ কার্যক্রম। বৃহত্তর ঈদগাঁওর পার্শ্ববর্তী ইসলামাবাদ,জালালাবাদ, পোকখালী,ইসলামপুর,চৌফলদন্ডী,রশিদনগর,খুটাখালী, ঈদগড়, বাইশারীসহ জেলার সুপরিচিত একটি বাণিজ্যিক কেন্দ্র। ঈদগাঁওসহ তৎসংশ্লিষ্ট এলাকার ৪/৫ লক্ষাধিক মানুষের একমাত্র ব্যবসানগর। কাল পরিক্রমায় যেমন বেড়েছে বাজারের ব্যাপকতা,বেড়েছে গণ মানুষের বাজার কেন্দ্রিক নির্ভরতা, সম্ভাবনা। প্রশাসনিক সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা কাঠামোর দুর্বলতাও যথাযথ নজরদারী আর বাজারে নির্বাচিত কমিটির অভাবে উন্নয়ন,নিরাপত্তা বাজার কেন্দ্রিক ব্যবসা-বাণিজ্য শৃংখলা ও টেকসই হচ্ছেনা।

বাজারের ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, বৃহৎ ঈদগাঁও বাজারের সমস্যার মধ্যে,শৌচাগার-টয়লেট,পানি নিস্কাশন ব্যবস্থা, যানজট নিরসন,ট্রাফিক ব্যবস্থা,শদ্ব দূষন,আইনশৃংখলা নিয়ন্ত্রন বা সাবির্ক নিরাপত্তা ব্যবস্থা,বাজারের যেখানে সেখানে বসা ফুটপাত উচ্ছেদ,যানবাহনের ভাড়া তালিকা নির্ধারন,পার্কিং ব্যবস্থা,টোকেন বানিজ্যসহ নানা ক্ষেত্রে যারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারবে,রায় তাদের অনূকুলে যাওয়ার সম্ভাবনা।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •