সমালোচকদের মুখে ‘চুনকালি’ দিলেন মালয়েশিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্র 

সিবিএন ডেস্ক
মিজানুর রহমান আজহারী ভাইকে খুব কাছ থেকে জানি ও চিনি প্রায় ৫ বছর। তিনি খুবই বিনয়ী, বন্ধুসুলভ ও নিরহংকার একজন মানুষ। তার সাথে প্রথম পরিচয় ২০১৬ সালের প্রথম দিকে। যখন আমি ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অব মালয়েশিয়া (আইআইইউএম)তে অনার্স করতে আসি। আজকের সেলিব্রিটি মিজান ভাই সে দিন সেলিব্রিটি ছিলেন না। তখনো তার স্নেহ আমাকে মুগ্ধ করেছিল। হাসিমাখা মুখটা আকর্ষণ করে সবাইকে। ইতিবাচক ও ভালোবাসাপূর্ণ কথাই তার অন্যতম বৈশিষ্ট্য। অনেকের মাঝে যে গুনটি নেই, সেটা তার মধ্যে বিদ্যমান।
আজ প্রায় পাঁচ বছর পরে যখন তার নিযুত-কোটি ভক্ত জগৎজুড়ে, তখনও  দেখি সেই প্রথম পরিচয়ের মত বিনয়ী ও সিম্পলিসিটি। মিজান ভাইয়ের প্রতি শ্রদ্ধা ও ভালবাসা আরো হাজার গুণ বেড়ে যায়।
২০১৪ সালের দিকের কথা। তখন মিশরের আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সবেমাত্র অনার্স পাশ করে মাস্টার্স করতে আসেন। তখনো দেখি অসংখ্য ছাত্রের ভীড়ে মিজান ভাই আলাদা। চলন-বলন সম্পূর্ণ ভিন্ন দৃষ্টিকাড়ানো। বাংলা, ইংরেজি ও আরবিতে সমানতালে পটু। সম্ভবত আরো বেশ কয়েকটি ভাষায় তার দখল রয়েছে। বর্তমানে আমাদের একই ইউনিভার্সিটিতে পিএইচডি করছেন।
অন্য দশজন ছাত্রের মত তিনিও হোস্টেলে আজ অবধি রয়েছেন। এখানে বিভিন্ন মতের ১২০০ অধিক বাংলাদেশি ছাত্র রয়েছেন। তাদের মত আমিও একজন মিজান ভাইয়ের জীবনযাপনের চাক্ষুস সাক্ষি।
অন্য দশজন ছাত্রের মত হোস্টেলে শেয়ারিং সবকিছু ব্যবহার করেন। ক্যান্টিনে লাইনে দাঁড়িয়ে খাবার সংগ্রহ করেন। পায়ে হেটে ক্যাম্পাসে যাতায়াত করেন। রাত ১০ টায় লাইব্রেরি বন্ধ হলে সবার সাথে হলে ফিরেন পায়ে হেটেই। আমার দেখা ৫ বছরে তার থাকার যায়গা আজ অবধি হলের ১০০ স্কয়ার ফিটেরও ছোট রুমটি। বিলাসবহুল গাড়ি তো দূরের কথা, একটা দ্বিচক্রযানও নাই।
তাকে লাইব্রেরী/সেন্ট্রাল মসজিদে সহসা দেখা যায়। দেশের বাইরেও মাসে ২ টার বেশি প্রোগ্রাম করে না। তার কাছে গবেষণাটাই প্রধান।
তার সমালোচকদের বলব, কারো বিরুদ্ধে কথা বলার আগে তার সম্পর্কে জানুন। সম্ভব হলে তার সাথে কিছুটা সময় কাটান। তার কাছের মানুষদের থেকে জানার চেস্টা করুন। তারপর সমালোচনা করুন। প্লিজ, গীবত বন্ধ করুন। মুসলমানদের মধ্যে ফাটল তৈরি করবেন না। সম্ভাবনাময় ফুলকে ফুটতে দিন।
মিজানুর রহমান আজহারী সম্পর্কে জানলাম, ২০০৪ সালে দাখিল (SSC) পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হন।
২০০৬ সালে আলিম (HSC) পরীক্ষায় গোল্ডেন জিপিএ-৫ সহ বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষাবোর্ডের টপ মেরিট লিস্টে জায়গা করে নেন।
২০০৭ সালে ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃক আয়োজিত মিশর সরকারের শিক্ষাবৃত্তি পরীক্ষায় তিনি হাজার হাজার কওমি ও আলিয়া মাদ্রাসার ছাত্রদের মধ্যে ১ম স্থান অধিকার করে মিশরের আল আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্ডারগ্রাজুয়েট করার চান্স পান।
সেখান থেকে তিনি Department of Tafseer & Quranic Science হতে ২০১২ সালে ৮০% সিজিপিএ নিয়ে অনার্সে উত্তীর্ণ হন।
মিশরে ৫ বছর শিক্ষাজীবন অতিবাহিত করার পর ‘গার্ডেন অব নলেজ’ খ্যাত মালয়েশিয়ার ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি থেকে পোস্টগ্রাজুয়েশন ও এমফিল এবং পিএইচডি করার সিদ্ধান্ত নেন।
বিশ্ববিদ্যালয়ের Department of Quran and Sunnah Studies থেকে তিনি ২০১৬ সালের মধ্যে পোস্টগ্রাজুয়েশন এবং এমফিল শেষ করেন। মাস্টার্সে তার সিজিপিএ ছিল 3.82 out of 4. 
নিন্দুকদের জেনে রাখা উচিত, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের লেজুড়বৃত্তি করে পরীক্ষায় হায়ার সিজিপিএ অর্জন শুধুমাত্র নিশীথ প্রশ্ন ফাঁসের দেশ বাংলাদেশেই সম্ভব। এমফিলে তার গবেষণার বিষয়বস্তু ছিল “Human Embryology in the Holy Quran: A comparative Analysis between Tantawi Jawhari & Zagloul Najjar’s interpretation. 
তারপর তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি ক্যান্ডিডেট হিসেবে মনোনিত হন। “Human Behavioural Characteristics in the Holy Quran: An Analytical Study” বিষয়ের উপর তিনি বর্তমানে পিএইচডি গবেষণা করছেন। এমফিল এবং পিএইচডির গবেষণার মাধ্যম হলো ইংরেজি।
মিজানুর রহমান আজহারী IELTS পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে Ovarall 7.5 out of 9 ব্যান্ড স্কোর এবং স্পিকিং সেকশনে ও 7.5 ব্যান্ড স্কোর অর্জন করেন।
মিজানুর রহমান আজহারীর মতো ব্যক্তি প্রতিদিন জন্ম নেয় না। তিনি জ্ঞান-গবেষণার একটি ধ্রুবতারা। আল্লাহ সবাইকে সত্যের পথে রাখুক। আমিন।
এ এস এম বুরহানুল হুদা
শিক্ষার্থী
ইন্টারন্যাশনাল ইসলামিক ইউনিভার্সিটি মালয়েশিয়া, কুয়ালালামপুর।

সর্বশেষ সংবাদ

চসিকে তিন মেয়র প্রার্থীর হলফনামায় যত সম্পদ!

জমি দখল করতে না পারায় ফাঁসানো হলো ভিন্ন মামলায়!

বিদ্যুতের দাম ৫ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়লো

মুক্তিযোদ্ধা নূরুল আলম চেয়ারম্যানের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী ২৮ ফেব্রুয়ারি

চকরিয়ায় কলেজ ছাত্রীকে উত্যক্ত, বখাটের ছয় মাসের কারাদন্ড

কোনো শিশুকে যেন ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োগ দেওয়া না হয়

ঈদগড় মেডিকেল সেন্টার এন্ড হাসপাতালে ফ্রি চিকিৎসাসেবা

দিল্লির সহিংসতা ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়, মুসলিম বিশ্বের নাক না গলানোই ভাল : ট্রাম্প

ঈদগড়ে ইয়াবা সহ আটক-১

আওয়ামীলীগের মুখে গণতন্ত্র , মনে মনে স্বৈরতন্ত্র : লুৎফুর রহমান কাজল

রামুতে পন্ডিত সত্যপ্রিয় মহাথের’র জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান শুরু

তানযীমুল উম্মাহ হিফয মাদরাসায় ট্যালেন্টপুলে ১২ জনের বৃত্তিসহ শতভাগ পাশ

অভিনব পন্থায় চলছে মহেশখালী পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের দুর্নীতি

কক্সবাজার সিটি কলেজ বন্ধু সভার পাঠচক্র অনুষ্ঠিত

`করোনাভাইরাস’- কল্পনা করতে গা শিউরে ওঠে!

কক্সবাজারের এলএ শাখার ৩০ কর্মকর্তাকে বদলী

শুদ্ধ সুরে জাতীয় সঙ্গীত গাইলো রাঙামাটির শিক্ষার্থীরা

বিদ্যুতের দাম আবার বাড়ল

কুতুবদিয়া উপজেলা বিএনপির আংশিক কমিটি অনুমোদন

খাগড়াছড়ির রামগড়ে কৃষি ফার্ম শ্রমিকদের কর্মবিরতি কর্মসূচী পালন