নিজস্ব প্রতিবেদক
আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিতব্য কক্সবাজার জেলা ক্রীড়া সংস্থার কার্যনির্বাহি পরিষদের নির্বাচনে সদস্য পদে লড়ছেন কক্সবাজার বাহারছড়া একতা ক্রীড়া চক্রের সভাপতি, সাবেক ক্রিকেটার ও বিভাগীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত অ্যাথলেট আবছার কামাল।
ইতোমধ্যে তিনি ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা শুরু করেছেন। দোয়া চাচ্ছেন সুধীজনের। নির্বাচনী প্রচারণার ধারাবাহিকতা অনুযায়ী তিনি ১২ ফেব্রুয়ারী দ্বীপ উপজেলা মহেশখালী সফরে যান। সেখানকার ভোটারদের সাথে সৌজন্য সাক্ষাত ও ভোট প্রার্থনা করেন।
এদিকে, কৃতি এই অ্যাথলেটকে নির্বাচনের মাঠে পেয়ে ক্রীড়ামোদিদের মাঝে আশার আলো দেখা দিয়েছে।
দিন যতো ঘিনিয়ে আসছে ক্রীড়ামোদিদের কাঙ্খিত এই নির্বাচনী আবহ ততোই জনজমাট হচ্ছে। তীব্র হচ্ছে প্রতিদ্বন্দ্বিতা।
এবারের নির্বাচনে পৃথক দুইটি প্যানেলে ভোট হলেও ব্যক্তিত্ব ও গ্রহণযোগ্যতা বিবেচনায় প্যানেলের বাইরে থেকেও চমক দেখাতে পারেন অনেক প্রার্থী। তাদের মধ্যে অন্যতম আবছার কামাল। সরেজমিন এমন আভাস ভোটারদের।
ভোটারদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ভোটের মাঠে প্যানেল মূল বিবেচ্য নয়। কার যোগ্যতা কেমন? সেটিই মূখ্য। প্যানেলের বাইরে হলেও ত্যাগি ও পরীক্ষিত ক্রীড়া সংগঠক হিসেবে আবছার কামালকে তারা হিসেবের খাতায় রেখেছেন।
তাদের ভাষ্য, তরুণ এই অ্যাথলেট দীর্ঘদিন ধরে খেলার জগতে সম্পৃক্ত রয়েছেন। নৈপূন্যতা রয়েছে ক্রিকেট ও ফুটবলে। ক্রীড়ার পাশাপাশি পৃষ্ঠপোষকতা করে আসছেন নানা সামাজিক সংগঠনকেও।
ভোটারদের বিবেচনা হলো- আবছার কামালদের মতো তরুণ ও ক্রিয়েটিভ নেতৃত্বের দ্বারাই ক্রীড়াঙ্গণের উন্নতি হবে। যে কথাটি প্রার্থী নিজেও বলেছেন।
আবছার কামাল বলেন, তৃণমূলের চাওয়াকে প্রাধান্য দিয়ে নির্বাচন করছি। জয়ী হলে ক্রীড়া উন্নয়নে সকলকে সাথে নিয়ে একসাথে কাজ করবো। নির্বাচিত হলে বছরে অন্তত একবার সবার সমন্বয়ে বর্ধিত সভা করার চেষ্টা করবো। আমি সবার দোয়া, সমর্থন ও ভালোবাসা কামনা করছি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •