জাহাঙ্গীর আলম, আনোয়ারা

৯ বছর পর বাড়ি ফিরে মা-বাবাকে দেখার স্বপ্ন পূরণ হলনা চট্টগ্রামের আনোয়ারার বাসিন্দা ও দক্ষিণ আফ্রিকা প্রবাসী মুরাদ খানের (৩২)। শনিবার (৯ ফেব্রুয়ারী) রাতে সন্ত্রাসীরা এলোপাতাড়ি গুলি চালিয়ে নিজ বাসায় তাকে হত্যাকরে। নিহত মুরাদ খান উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামের ফয়েজ আলী সিকদার বাড়ির অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা মাবুদ খানের দ্বিতীয় পুত্র বলে জানা যায়।
নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৯ বছর আগে মুরাদ বেকারত্বের অবসান ঘটিয়ে বড় ভাইয়ের হাত ধরে আফ্রিকা চলেযান। সেখানে বড় ভাইয়ের সহযোগিতায় একটি রকমারি ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন। প্রতিদিনের ন্যায় রবিবারও রাতে ব্যবসার কার্যক্রম শেষ করে দুই ভাই একসাথে বাসায় চলে যায়। বাসায় দুই ভাই দুই রুমে ঘুমায়। রাতে হঠাৎ একদল সনত্রাসী বাসার দরজা ভেঙে মুরাদের বুকে ও পিঠে এলোপাথাড়ি গুলি করে পালিয়ে যায়। এতে মুরাদ মারাত্বক আহত হলে বড় ভাই মারুফ দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
মুরাদের আবদুল মাবুদ জানান, ২০১১ সালে মুরাদ দক্ষিণ আফ্রিকা যাওয়ার পর একবারও দেশে আসেনি। আগামী মার্চে দেশে এসে বিয়ে করার কথাছিল। মনে করে ছিলেম বাড়ি আসলে ধুমধামের সাথে ছেলের বিয়ে দেব। আমাদের সেই স্বপ্ন চুরমার হয়ে গেল। আগামী সপ্তাহে মুরাদের মরদেহ দেশে আনা হবে।
এ দিকে, সন্তানের মৃত্যুর খবর শুনে বার বার জ্ঞান হারাচ্ছেন মুরাদের মা সুলতানা রাজিয়া। বাড়িতে ভাই বোন আত্মিয় স্বজনদের আহাজারি চলছে।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •