পেকুয়া প্রতিনিধি:

সংসারে সুঃখের আসায় বছরের সঞ্চয় নিয়ে খেত করেন বৃদ্ধ সামশুল আলম (৬৫)। আর্থিক অভাব ও ছেলেমেয়েদের অবহেলার মাঝেও তিনি ভিক্ষা না করে খেত করে সংসার চালানোর কারণে এলাকাবাসীর মাঝে সৎ মানুষ হিসাবে অধিক পরিচিত।

গতকাল রাতের কোন সময় তার সবজী খেত পুরোটাই নষ্ট করে দিয়েছেন দূর্বৃত্তরা। এতে বৃদ্ধ সামশুল আলমের ৬০হাজার টাকার ক্ষতির পাশাপাশি পুরো বছর জুড়ে তাকে কাটাতে হবে আর্থিক অভাব আর অনটনে। খেত নষ্টকারী সেই দূর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে প্রতিকার চেয়ে ঝাড় সীম (খাইস্যা)সহ বেশ কিছু প্রকার নষ্ট খেত নিয়ে থানায় হাজির হন আলেকদিয়া কাটার মৃত ইয়াকুব আলীর ছেলে বৃদ্ধ সামশুল আলম।

শনিবার দিবাগত রাতে শিলখালী ইউনিয়নের আলেকদিয়া কাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

বিচারের আশায় পেকুয়া থানায় অবস্থানকালে বৃদ্ধ জানান, তার নিজস্ব অল্প জমিতে হরেক রকমের সবজি চাষ করেন। সেখান থেকে যা আয় হয় তা দিয়ে চলে সংসার। রাতের কোন সময় সেই খতটি নষ্ট করে দিলেন একই এলাকার মোজাফ্ফর আহমদের মোহাম্মদ জানুর নেতৃত্বে একদল দূর্বৃত্ত। সকালে ঘুম থেকে ওঠে দেখেন তার সঞ্চয়ের পুরো খেত দূর্বৃত্তরা নষ্ট করে দিয়েছেন। তিনি বুঝতে পারছেন না তার খেত কেন নষ্ট করা হল।

স্থানীয় বিভিন্নজনকে বিষয়টি অবগত করার পর কোন সুরহা না পাওয়ায় থানায় হাজির হন। তিনজনকে বিবাদী করে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

তিনি আরো বলেন, বসতবাড়ি ছাড়া অল্প নাল জমি আছে। সেই জমিতে আমি দীর্ঘদিন ধরে সবজি খেত করে সংসার চালাচ্ছি। শনিবারের দিবাগত রাতের কোন এক সময় পূর্বের বিরোধের জের ধরে জানু আলমের নেতৃত্বে আমার খেত নষ্ট করে ৬০হাজার টাকার ক্ষতি করে। আমি অসহায় মানুষ। বিচারের আশায় থানায় অভিযোগ দিয়েছি।

পেকুয়া থানার ওসি কামরুল আজম বলেন, খেত নষ্ট করার বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তা তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •