তারেকুর রহমান:

সিমুনিয়া খেলাঘরের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও সাংস্কৃতিককর্মী এম জসিম উদ্দিনের কবিতার বই ‘উজান গাঙের পাগলা ঢেউ-এর মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় কক্সবাজার পৌরসভার সম্মেলন কক্ষে বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। খেলাঘর কক্সবাজার জেলার আয়োজনে সহ-সভাপতি উৎপলা বড়ুয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, খেলাঘর চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল করিম। মোড়ক উম্মোচন করেন, খেলাঘর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বিটিভির কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি জাহেদ সরওয়ার সোহেল।

কক্সবাজার খেলাঘরের সাধারণ সম্পাদক ও আমরা কক্সবাজারবাসীর সমন্বয়ক করিম উল্লাহ কলিম সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক বিশ্বজিত বিশু, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি সত্যজিৎ প্রিয় দোলন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বের মধ্যে- সুবিমল পাল পান্না, কবি মানিক বৈরাগী, খোরশেদ আলম, আমরা কক্সবাজারবসীর সমন্বয়ক নাজিম উদ্দিন, সাংবাদিক মহসিন শেখ, সংগীতশিল্পী নাছির উদ্দিন, আরেফিন রুমি, কল্লোল দে, শিক্ষিকা বুলবুলে জান্নাত, কালাম আজাদ, ফয়সাল সাকিব, মনির মোবারক, আলমগীর চৌধুরী প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বক্তরা বলেন, এম জসিম উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে জ্ঞানপিপাসু হয়ে সাহিত্যিক অঙ্গনে জড়িত আছেন, তাঁর মননশীল দৃষ্টি সাহিত্য শিল্পে অবদান রাখবে বলে সকলের বিশ্বাস, ক্ষুরধার লিখনী ও কবিতার লাইনে তিনি সমাজের নিপীড়িত ও অবহেলিত মানুষের কথা তুলে ধরেন। বক্তারা আরো বলেন, কক্সবাজার পাবলিক লাইব্রেরী সংস্কারকাজের অজুহাতে এখন বন্ধ, সেখানে আগের মতো পড়ার আড্ডা চলেনা। ফলে অনেক বই প্রেমী ও জ্ঞানপিপাসু সম্মেলিত পড়া থেকে বঞ্চিত, সাহিত্যচর্চার স্বার্থে পাবলিক লাইব্রেরী সংস্কারপূর্বক খোলে দেয়ার আহ্বান জানান তারা। শিল্পকলা একাডেমির কার্যালয় দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিও তুলে ধরেন বক্তারা।

‘উজান গাঙের পাগলা ঢেউ’ কবিতার বইয়ের ব্যাপারে কবি এম জসিম উদ্দিন বলেন, অনেক কষ্ট করে কবিতা পাগল মানুষগুলোর জন্য বর্তমান সমাজের নিত্যদিনের কার্যকলাপের সাথে সংশ্লিষ্ট রেখে কবিতার বইটি লিখলাম। সমাজের প্রতিটি মানুষ আমার কবিতাগুলো থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবে বলে আশা করছি। একুশে ফেব্রুয়ারি সামনে রেখে বইটি উন্মোচন করেছি। বইতে ভাষা, মনোভূমি ও স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মতো চমৎকার কবিতা লিখা হয়েছে। লিখা হয়েছে মানুষের সুখ-দুঃখের কবিতা, ভালোবাসা, আশা-দূরাশা, বৈচিত্র্য নিয়ে অনেক যতœসহাকরে এই কবিতার বই সাজিয়েছি। আশা করি কবিতা প্রেমিক পাঠকদের খুব ভালো লাগবে। তিনি সকল পাঠকদের দোয়া, ভালোবাসা ও সহযোগিতা কামনা করেন।

বইিটতে ৪০টিরও বেশি কবিতা রয়েছে। বইটি প্রকাশনা করেছে কক্সবাজার সাহিত্য একাডেমি। একুশের বই মেলায় ‘ঝিঙেফুল’ স্টল ৭৩৪,৭৩৫,৭৩৬ নং স্টলে এবং ‘নন্দন বইঘর’-এ (সেন্ট্রাল হাসপাতালের পাশে, কক্সবাজার) সূলভমুল্যে বইটি পাওয়া যাবে। কবি এম জসিম উদ্দিন কক্সবাজার পৌর এলাকার দক্ষিণ টেকপাড়ায় ১৯৭৭ সালের ৭ জুলাই জন্মগ্রহণ করেন, তাঁর বাবা আবদুল হামিদ ও মাতা ছখিনা খাতুন। তিনি অল্প বয়স থেকেই বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় লেখালেখি করে আসছেন। তিনি একজন সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মী ও দক্ষ শিশু সংগঠক, সম্প্রতি তিনি জেলা শিল্পকলা একডেমিতে সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। খেলাঘর কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জেলার সহ-সভাপতি। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে যুক্ত আছেন আমরা কক্সবাজারবাসীর সমন্বয়ক কবি এম জসিম উদ্দিন।

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •