cbn  

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:
কক্সবাজারের সাড়া জাগানো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের বার্ষিক সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ৫ ও ৬ ফেব্রুয়ারি দুইদিন ব্যাপী ইংরেজি ও বাংলা ভার্সনের আলাদা করে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত প্রতিযোগিতায় প্রথম দিনে প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ আমিন আল পারভেজ। তিনি প্রথম দিনের অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন। দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মুজিবুর রহমান। দুই দিনের অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের পরিচালনা কমিটির সভাপতি ডা. সরওয়ার হাসান, একাডেমিক সেক্রেটারি জাহাঙ্গীর কাশেম। প্রথম ও দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করে বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী স্বরলিপি ধর গুনগুন ও তাফান্নুম সোহরাত। এতে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় স্বত:স্ফুর্তভাবে অংশ নেয়।

প্রথম দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোঃ আমিন আল পারভেজ বলেন, কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের শিক্ষা ব্যবস্থা অত্যাধুনিক। এই বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ যে ভাবে আন্তরিকতার সাথে শিক্ষা দিয়ে যাচ্ছে তা কক্সবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের বিকল্প হিসেবে গড়ে উঠতে পারে।

দ্বিতীয় দিনের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তব্যে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র বলেন, ‘ক্রীড়া, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড শিক্ষারই অবিচ্ছেদ্য অংশ। এগুলো ছাড়া শিক্ষার পরিপর্ণতা অর্জন হয় না। তাই একাডেমিক শিক্ষার পাশপাশি অবশ্যই শিক্ষার্থীদের জন্য ক্রীড়া, সাহিত্য ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত করতে হবে। তবেই একজন শিক্ষার্থী পরিপূর্ণ হয়ে গড়ে উঠবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল স্কুল কক্সবাজারের শিক্ষার ক্ষেত্রে অগ্রণী অবদান রেখে যাচ্ছে। তাদের শিক্ষা পদ্ধতি অত্যন্ত কার্যকরী। এই বিদ্যালয় সুন্দর ও কার্যকরী শিক্ষাদানের মাধ্যমে আগামীর মেধাবী জাতি গঠনের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার রাখছে।’

মুজিবুর রহমান বিদ্যালয়ের সমস্ত কার্যক্রম ঘুরে দেখেন। এসময় বিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং কর্তৃপক্ষের ভূঁয়সী প্রশংসার করেন। বিদ্যালয়ের কম্পিউটার ল্যাব, সাইয়েন্স ল্যাব উন্নয়নের সহযোগিতা এবং আগামী শিক্ষা সফরসহ নানা অনুষ্ঠানে নিজেই অংশ নেবেন বলে আশ^স্ত করেন তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •