বাংলানিউজ 

প্রেমিকার সঙ্গে মোবাইলে কথা বলার সময় নিজের বন্দুক দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন তপু দেবনাথ নামে এক পুলিশ সদস্য।

সোমবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বিশ্বনাথ থানা কম্পাউন্ডের ছাদে এ ঘটনা ঘটে। আহত কনস্টেবল তপু দেবনাথ বর্তমানে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত তপু দেবনাথ মৌলভীবাজারের জুড়ি উপজেলার কাশিনগর গ্রামের বাসিন্দা।

থানা সূত্রে জানা যায়, সন্ধ্যায় ডিউটি চলাকালীন সময়ে নিজ রাইফেল নিয়ে ছাদের উপর যান তপু। সেখানে মোবাইলে কথা বলার এক ফাঁকে নিজের রাইফেল দিয়ে বুকে গুলি চালান। গুলির শব্দ শুনে পুলিশ সদস্যরা ছাদের উপর গিয়ে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে সেখানে তার জরুরি অস্ত্রোপচার করা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জেলা দক্ষিণ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বলেন, প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে ওই পুলিশ সদস্য নিজ রাইফেল দিয়ে বুকে গুলি চালায়। তিনি যে মেয়ের সঙ্গে কথা বলছিলেন মেয়েটিকে তার পরিবার মেনে নিচ্ছিল না বলে জানা গেছে। এ কারণে তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার বাড়িতে খবর দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে যান সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি কামরুল আহসান, পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিনসহ পদস্থ কর্মকর্তারা।

হাসপাতালের উপ-পরিচালক হিমাংশু লাল রায় বাংলানিউজকে বলেন, আহত পুলিশ সদস্যের বুকের বা পাশে গুলি লেগেছে। গুলিটি ফুসফুস ভেদ করে বেরিয়ে গেছে। প্রাথমিকভাবে অস্ত্রোপচার করে রক্ত বন্ধ করা হয়েছে। তবে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাই তাকে জরুরিভাবে ঢাকা বক্ষব্যাধি হাসপাতালে নিয়ে যেতে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। রাতেই তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হবে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •