মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

টেকনাফ সরকারি কলেজ মাঠে সোমবার ৩ ফেব্রুয়ারী ২১ জন ইয়াবাকারবারী কর্তৃপক্ষের সাথে ৯ টি শর্তে আত্মসমর্পণ করেছে।

যেসব শর্তে আত্মসমর্পণ : ১. নিজের হেফাজতে থাকা সব ইয়াবা ও অবৈধ অস্ত্র পুলিশের কাছে হস্তান্তর করতে হবে। ২. আত্মসমর্পণের আগের মামলা ও বিচার কার্যক্রম স্বাভাবিক নিয়মে চলবে। ৩. ইয়াবা ব্যবসায় নিজের বা পরিবারের সদস্য বা আত্মীয়স্বজনের নামে-বেনামে অর্জিত সব সম্পদ দুদক, সিআইডির মানি লন্ডারিং শাখা ও এনবিআরের মাধ্যমে যাচাই করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। ৪. আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ায় দায়ের হওয়া মামলায় সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে সহায়তা দেয়া হবে। ৫. যেসব মাদক ব্যবসায়ী এখনও সক্রিয় তাদের ব্যাপারে তথ্য দিয়ে সহায়তা করতে হবে। ৬. আইনি প্রক্রিয়ায় মুক্ত হলে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার পাশাপাশি নিজ নিজ এলাকায় মাদকবিরোধী কর্মকান্ড করতে হবে। ৭. ভবিষ্যতে কখনও মাদক ব্যবসা সংক্রান্ত অপরাধে জড়িত হওয়া যাবে না। ৮. আত্মসমর্পণ প্রক্রিয়ায় তাদের বিরুদ্ধে যে মামলা ২ টি হবে, সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে তাদের আইনগত সুবিধা দেয়ার বিষয়টি বিবেচনা করা হবে। কর্তৃপক্ষ ও আত্মসমর্পণকারীরা এসব শর্ত মেনে নিয়ে সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে আত্মসমর্পণ করেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •