এম.জিয়াবুল হক,চকরিয়া :

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলা সদরে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হয়েছে আন্তর্জাতিক ক্বিরাত সম্মেলন-২০২০। চকরিয়া ক্বিরাত সংস্থার আয়োজনে শনিবার রাতে চকরিয়া সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে দেশী-বিদেশী ক্বারীদের সুরের মূর্চনায় মাতিয়ে উঠে পুরো ময়দান। ক্বিরাত সম্মেলনে কুরআন প্রেমিক মানুষের বিপুল সমাগম ঘটে।

সম্মেলন কমিটির আহবায়ক ব্যাংকার আবদুস শাকুর জানান, চকরিয়ায় প্রথমবারের মতো অনুষ্টিত আন্তর্জাতিক ক্বিরাত সম্মেলন সর্বস্তরের মানুষের মনে কল্পনাতীত সাড়া ফেলেছে। সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাফর আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন চকরিয়া পৌরসভার মেয়র মো. আলমগীর চৌধুরী। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন চকরিয়া থানা সেন্টার জামে মসজিদের খতিব আলহাজ মাওলানা রুহুল কুদ্দুস আনোয়ারী, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের খতিব মাওলানা কফিল উদ্দিন ফারুক, সমাজসেবক নাছির উদ্দিন, চকরিয়া পৌরসভা আওয়ামীলীগের সদস্য ও সিস্টেম চকরিয়া কমপ্লেক্সের পরিচালক লায়ন আলমগীর চৌধুরী। সম্মেলনে সুরের মূর্চনায় সবাইকে মাতিয়ে তুলেন আন্তর্জাতিক ক্বারী শাইখ আহমাদ বিন ইউসুফ আল-আযহারী (বাংলাদেশ), ক্বারী কারীম মানসুরী (ইরান), শাইখ আদিল আল-বায (মিশর), শাইখ আহমাদ আল-খালদী (মরক্কো), ক্বারী মুয়াজ মোস্তফা (থাইল্যান্ড) ও ক্বারী হুসাইন তুরকান (তুরস্ক)।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি আলহাজ জাফর আলম এমপি বলেছেন, বলেন, অতীতের যে কোন সরকারের তুলনায় জননেত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার ইসলাম ধর্মের মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে নিরলশভাবে কাজ করছেন। সরকার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে আলেম-ওলামাদের অধিকার নিশ্চিতের পাশাপাশি ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের মান্নোয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বলেন, দেশ স্বাধীন হওয়ার পর প্রথম জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান পবিত্র ইসলাম ধর্মের মর্যাদা বিকশিত করতে ও এ দেশের আলেম-ওলামাদের অধিকার নিশ্চিত কল্পে ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রবর্তন করেন। তারই ধারাবাহিতকার অংশ হিসেবে জাতির পিতার সুযোগ্য উত্তরসুরী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ম শেখ হাসিনা সরকারের আমলেও পবিত্র ইসলাম ধর্মের মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে এবং আলেম-ওলামাদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় কাজ করছেন। সেই আলোকে আগামীতে কোরআন প্রেমি জনগনের অধিকার ও মর্যাদা সমুন্নত রাখতে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে চকরিয়া-পেকুয়া উপজেলার প্রতিটি মসজিদ মাদরাসায়।

তিনি বলেন, বিগদগামী কিছু মানুষের অনৈতিক কাজের কারনে এদেশের আলেম-ওলামারা ভুলক্রমে নানাভাবে অবহেলিত এবং বঞ্চনার শিকার হচ্ছে। কিন্তু সরকার ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে প্রকৃত আলেম-ওলামাদের পরিচয় নিশ্চিত করে তাদের মর্যাদা রক্ষা করছেন। আমাদেরকে সজাগ থাকতে হবে যাতে ধর্মের দোয়াই দিয়ে কেউ বিপদগামী হতে না পারে। সেই ক্ষেত্রে আলেম-ওলামাদেরকে বলিষ্ট ভুমিকা পালন করতে হবে। পবিত্র ইসলাম ধর্ম হচ্ছে শান্তির ধর্ম। ইসলাম ধর্মের কোন ধরণের সংঘাতের স্থান নেই। ইসলাম ধর্ম আমাদেরকে যুগে যুগে শিক্ষা দিয়েছে শান্তিপুর্ণভাবে কিভাবে সমাজ ও দেশ চলবে।

এমপি জাফর আলম বলেন, ইসলাম ধর্মের শান্তির বারতা মানুষের কাছে সঠিকভাবে তুলে ধরতে হবে। তা হলেই বাংলাদেশে জঙ্গিবাদ ও অপরাজনীতির ঠাঁই হবেনা। এইজন্য সমাজ সংস্কারক আলেম-ওলামাদেরকে দায়িত্ববান ভুমিকা পালন করতে হবে। ##

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •