সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
টেকনাফ উপজেলার সাবরাং দারুল উলূম বড় মাদরাসার ৪৭ তম বার্ষিক সভা সম্পন্ন হয়েছে।
৩১ জানুয়ারী ও ১ ফেব্রুয়ারী মাদরাসার মুহতামিম মাওঃ মূফতী নুর আহমদের সভাপতিত্বে মাদরাসা মাঠে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বায়তুল মুকাদ্দাস ফিলিস্তিন এর গ্রান্ড ইমাম ও খতিব ড. শোখ আলী ওমর ইয়াকুব আল আব্বাসী। বায়তুল মুকাদ্দাসের খতিবের প্রদত্ত আরবী আলোচনার বাংলা অনুবাদ করেন আল ফালাহ সেন্টার ইউকে’র চেয়ারম্যান মাওলানা ফরিদ আহমদ খাঁন।
বিশেষ অতিথির আলোচনা করেন -লন্ডনের ইমিগ্রেশন ল-ইয়ার ড. শেখ ছালেহ আহমদ হামিদী, হাটহাজারী মাদরাসার শায়খুল হাদিস আল্লামা শেখ আহমদ।
অন্যান্যদের মাঝে আলোচনা পেশ করেন -হাটহাজারী মাদরাসার সিনিয়র শিক্ষক মুফতী হুমায়ুন কবির, মুফতি নুরুল ইসলাম, মাওঃ মোঃ আনাস মাদানী, মাওঃ কলিম উল্লাহ, মাওঃ মোঃ কাসেম।
সভায় বায়তুল মুকাদ্দাসের খতিব বলেন, খুব কঠিন সময় অতিবাহিত করে ইসলাম ধর্মের প্রচার হয়েছে। মক্কা থেকে দ্বীনের দাওয়াত শুরু হয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে এ পর্যন্ত এসে পৌঁছেন।
আমরা মুসলিম, রাসুল সাঃ এর উম্মত। রাসুল (সাঃ) এর আদর্শের উপর আজীবন থাকতে হবে। আমরা যতদিন বাচব রাসুল ( সাঃ ) এর আদর্শের উপর নিজেকে অটল থেকে অপরকে থাকার নসিহত করব। আমরা পৃথিবীতে আসছি আজীবন থাকবনা, একদিন মরে যাব। তিনি আরো বলেন, পৃথিবীতে কিছু ওলামা নামধারী ভ্রান্ত পথে রয়েছে, তবে অধিকাংশ ওলামা সঠিক পথে আছে। বিশেষ ভাবে উপমহাদেশের দেওবন্দী ওলামারা সঠিক পথে থেকে আজীবন দ্বীনি খেদমত এর আনজাম দিয়ে যাচ্ছে। যারা সহি ও সঠিক পথে আছে তাদের পদাঙ্ক অনুসরণ, অনুকরন করব।
আজ মুসলমানরা নির্যাতিত। একদিন সারা পৃথিবীতে নির্যাতিত মুসলমানরাই কামিয়াব হবে। এভাবেই একদিন পৃথিবীতে বিজয় আসবে। যদিও বিশ্বের পরা শক্তি আমেরিকা, সিরিয়া, ইয়াহুদী-খৃষ্টানরা প্রকাশ্যে বিজয় দেখে আনন্দিত হচ্ছে। প্রকৃত বিজয় হচ্ছে আখেরাতে। যেটা ঈমানদার ও মুসলিমরা পাবে। যদিও পৃথিবীতে বিজয় নাও হয় আখেরাতে তারা বিজয়ের স্বাদ ভোগ করবে। এছাড়া তিনি মাদরাসার সার্বিক সহযোগিতায় সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।
বায়তুল মুকাদ্দাসে গিয়ে বাংলাদেশী, বিশেষ করে টেকনাফ ও সাবরাং বাসীর জন্য দোয়া করবেন বলেও জানান । ২দিন ব্যাপী বার্ষিক সভায় পৃথক অধিবেশনে আরো সভাপতিত্ব করেন হ্নীলা দারুস্সুন্নাহ মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আফসার উদ্দীন কাসেমী, মন্ডল পাড়ার মাওলানা আজিজুল হক।
টেকনাফ সাংবাদিক ফোরাম’র সাধারন সম্পাদক, সাংবাদিক মুহাম্মদ জুবাইর, মাদরাসার শিক্ষক মাওলানা মোঃ তৈয়ব ও হাফেজ আবদুর রহমানের যৌথ পরিচালনায় উক্ত অনুষ্ঠিত হয়।
বায়তুল মুকাদ্দাস ফিলিস্তিন এর ড. শোখ আলী ওমর ইয়াকুব আল আব্বাসী দাঃ বঃ মাগরিবের নামাজের ইমামতি করেন, দুপুর থেকেই মাগরিব নামাজে জমায়াতে শরিক হতে হাজার হাজার মুসল্লী দল বেঁধে ছুটে আসেন।
সভায় নূরানী বোর্ডের সনদ পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ৪০ জন ছাত্র/ ছাত্রীকে সনদ ও পুরস্কার বিতরণ শেষে হেফজ সম্পন্ন কারী ১০ ছাত্রকে পাগড়ি প্রদান করা হয়। উল্লেখ্য নূরানী বোর্ড পরীক্ষায় ১২ জন শিক্ষার্থী মেধা তালিকায় স্থান পেয়ে মাদরাসার সুনামের ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •