মহেশখালী প্রতিনিধি:

মহেশখালী উপজেলার চরনদ্বীপ রেঞ্জ এর জেএম ঘাট বিটের গোলদিয়ার চর আবারও বনদস্যুরা অপদখল করে চলছে। গোপনে এমন খবর পায় মহেশখালী বনবিভাগ।

গোপন সংবাদের সুত্র ধরে ১ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল ১১টার সময় উপকূলীয় বনবিভাগ এর বিভাগীয় বন কর্মকর্তার নির্দেশক্রমে চরনদ্বীপ রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ হাবিবুল হক এর নেতৃত্বে অন্যান্য স্টাফসহ চরসদ্বীপে অভিযান পরিচালনা করে অবৈধ ভাবে তৈরিকৃত চিংড়িঘেরেরর বাঁধকেটে বিলিন করে দেওয়া হয়।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, চকরিয়া উপজেলার পালাকাটা এলাকার জামাল চৌধুরীর নেতৃত্বে একদল ভূমিগ্রাসী অবৈধ ভাবে সরকারি বনভূমিতে চিংড়িঘের তৈরি করছিল। বনবিভাগের অভিযান টেরপেয়ে ভূমিদস্যুদের সদস্যরা পালিয়ে যায়।

রেঞ্জ কর্মকর্তা হাবিবুল হক জানান,খুবই মর্মান্তিক একটি বিষয়, এই পর্যন্ত ৩/৪বার কেটে দেওয়া হয়েছে অবৈধ ভাবে তৈরি করা চিংড়িঘের। এবার যদি অপদখলের চেষ্টা করে, তা হলে আর রেহায় দেওয়া হবেনা বলে বনদস্যুদের হুসিয়ারি দেন রেঞ্জ কর্মকর্তা। তিনি আরো বলেন আমরা চাকরি করতে এসেছি সরকারি সম্পদ রক্ষা করতে। সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত টানা ৬ঘন্টা অভিযান চালিয়ে অবৈধ চিংড়িঘের কেটে বিলিন করে দেওয়া হয়। সরকারি সম্পদ লুটেরা লুটেপুটে খাবে তা হতে দেয়া যায় না। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ কে অবহিত করা হয়েছে এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •