মোঃ নিজাম উদ্দিন, চকরিয়া:
কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগ আওতাধীন ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জের বনভূমির গাছ কেটে জমি নির্মাণকালে অভিযান চালায় বনবিভাগ। চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা রংমহলের এ বনভূমিতে অগভীর নলকূপ স্থাপন করে চাষাবাদের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছিল।
সরেজমিনে জানা যায়, স্থানীয় উত্তরপাড়া গ্রামের নেপাল দে’র ছেলে মানিক দে’র নেতৃত্বে জবরদখল কাজ চলছিল। রংমহল এলাকার লোকনাথ মন্দির প্রবেশ পথে বনভূমির গাছ কেটে মুথা গুলো উপড়ে ফেলা হয়। কাটা গাছের মুথা নিশ্চিহ্ন করতে লাঙ্গল দিয়ে চাষ দেওয়া হয়েছে। ওই জমিতেই স্থাপন করা হচ্ছে অগভীর নলকূপ। এছাড়াও ওই এলাকার বেশকিছু বনভূমি কেটে জমি প্রস্তুত করে চাষাবাদ করছে মানিক দে।
বিষয়টি বনবিভাগকে অবগত করা হলে শুক্রবার বিকেলে অভিযান চালানো হয়। এসময় নলকূপ স্থাপনের দুই বান্ডেল প্লাস্টিক ও লোহাযুক্ত নল জব্দ করেন। বনবিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জের বনভূমি দখল করে চাষাবাদের জমি তৈরির খবর পেয়ে কক্সবাজার উত্তর বনবিভাগের ডিএফও মোঃ তৌহিদুল ইসলামের নির্দেশে অভিযান চালানো হয়।
ডুলাহাজারা বিট কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন জানান, বনভূমির গাছ কেটে জমি তৈরি করছিল একটি প্রভাবশালী চক্র। এমন খবর পেয়ে বন কর্মীদের সহযোগিতায় অভিযান চালানো হয়। এসময় বনভূমিতে নলকূপ স্থাপনের নলের বান্ডেল জব্দ করা হয়েছে। কর্তনকৃত গাছগুলো উদ্ধার প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।
ফাঁসিয়াখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা মাজাহারুল ইসলাম বলেন, ডুলাহাজারা রংমহলে বনভূমি দখল করে চাষাবাদের জমি তৈরির খবর পেয়ে অভিযান চালানো হয়েছে। এসময় নলকূপ স্থাপনের বেশকিছু সরঞ্জাম জব্দ করা হয়। বনভূমি অবৈধ দখলের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে এবং এতে কাউকে ছাড় দেওয়া হচ্ছেনা বলেও তিনি জানান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •