বিভীষণ দে :  প্রতি বছরের ন্যায় এই বছরও দক্ষিণ চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কক্সবাজার সিটি কলেজে আড়ম্বর পরিবেশে শ্রী শ্রী বাণী অর্চনা -২০২০ অনুষ্ঠিত হয়। ছাত্রছাত্রীদের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ এই বারের পূজোতে নতুন মাত্রা চলে আসে। পূজার যথারীতি নিয়ম অনুয়ায়ী সকাল নয়টায় মাঙ্গলিক কার্য, এগারটায় পুষ্পাঞ্জলি ও দুপুর দেড়টায় প্রসাদ বিতরণ করা হয়। বিকাল চারটায় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এতে অত্র কলেজের ছাত্রছাত্রীদের ভক্তিগীতি, ভজন, শ্যামা সংগীত, রবীন্দ্র সংগীত, নজরুল সংগীত ও মনোমুগ্ধকর নৃত্যের মধ্যে দিয়ে পুরো সরস্বতী পূজাকে এক অলৌকিক সুরের মূর্চ্ছনায় আবদ্ধ করে। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পর পরই কলেজের  অধ্যক্ষ ও শ্রী শ্রী বাণী অর্চনার প্রধান পৃষ্ঠপোষক  ক্য থিং অং এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত সভায় উপাধ্যক্ষ  আবু মোহাম্মদ জাফর সাদেক সহ বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধানগন উপস্থিত ছিলেন।

উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতির সমাপনী বক্তব্যে ক্য থিং অং বলেন, বঙ্গবন্ধু অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার যে বীজ বপন করেছিলেন তা ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে বিকশিত করার লক্ষ্যে কক্সবাজার সিটি কলেজ এক অনবদ্য ভূমিকা রাখছে। কক্সবাজার সিটি কলেজে বার্ষিক মিলাদ মাহফিল, বৌদ্ধ পূর্ণিমা এবং বড়দিন উদযাপন হয়ে আসছে। তিনি আরো বলেন, একমাত্র কক্সবাজার সিটি কলেজেই কারো কাছ থেকে কোন ধরণের পৃষ্ঠপোষকতা ছাড়াই প্রতিটি ধর্মীয় অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়ে থাকে।

পুরো অনুষ্ঠানটির সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন শ্রী শ্রী বাণী অর্চনা -২০২০ এর উপদেষ্টা মন্ডলীগনের মধ্যে অধ্যাপক গোপাল কৃষ্ণ দাশ, অধ্যাপক মেঘলা দেব, অধ্যাপক নির্মল কান্তি দে, অধ্যাপক পবন পাল, অধ্যাপক উজ্জ্বল দেব অধ্যাপক বিভীষণ দে, অধ্যাপক প্রসেনজিত ধর, অধ্যাপক সুমন ঘোষ ও অধ্যাপক ঐন্দ্রিলা দত্ত প্রমুখ। সার্বিক সহযোগিতায় ছিল কক্সবাজার সিটি কলেজের শ্রী শ্রী বাণী অর্চনা পরিষদ-২০২০ এর সভাপতি অসীম কান্তি দে(বিবিএ, চতুর্থ বর্ষ, ব্যবস্থাপনা বিভাগ), সাধারণ সম্পাদক মান্না দে ( বিবিএ ৩য় বর্ষ ব্যবস্থাপনা বিভাগ) সাংগঠনিক সম্পাদক সোমা দাশ ( বিবিএ ৩য় বর্ষ, ব্যবস্থাপনা বিভাগ) অর্থ সম্পাদক অমিত দত্ত ( বিবিএ ৩য় বর্ষ, মার্কেটিং বিভাগ) এবং একাদশ, দ্বাদশ ও বিভিন্ন বিভাগের ছাত্রছাত্রীবৃন্দ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •