cbn  

জাহাঙ্গীর আলম, ইনানী, উখিয়াঃ

উখিয়ার জালিয়া পালং ইউনিয়নের প্রায় ২২ কিলোমিটার এলজিইডি সড়কটি চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সড়কে প্রতিনিয়তই ঘটছে ছোটখাট দুর্ঘটনা। অবর্ণনীয় কষ্টের শিকার স্থানীয় বাসিন্দারা। ভাঙাচোরা রাস্তা দিয়ে দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে লাখের অধিক জনগণকে। পুরনো সড়কটি এখন মরণফাঁদে রূপ নিয়েছে। দ্রুত সংস্কার না করা হলে এ সড়কে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে।
সিএনজি-অটোরিকশা কোন রকম চলাচল করতে পারলেও ভারী যানবাহন চলাচল চরম ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে যায়।
বর্ষাকালে ছোট মাঝারি গাড়ি গুলোর চলাচল একেবারেই বন্ধ থাকে।
কোটবাজার থেকে মনখালী পর্যন্ত কিছু কিছু জায়গায় সংস্থার করা হলেও বড় বড় ভাঙাগুলো রয়ে গেছে আগের মতই।
দেখা যায়, রাস্তাটির দুই পাশে পুকুরের পরিমাণ গর্ত হয়ে গেছে।
স্থানীয় বাসিন্দা আব্দুল গফুর জানান, ৫ বছর আগে সড়কটি কোনরকম তড়িঘড়ি করে কাজ শেষ করলেও পরে আর কোন কাজ হয় নি। নির্বাচন আসলে বড় বড় স্বপ্ন দেখায় প্রার্থীরা। ভোট চলে গেলে তাদের দেখা মেলে না।
স্থানীয় ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হক কক্সবাজার নিউজ ডটকম (সিবিএন)কে জানান, মেরিন ড্রাইভ রোড দিয়ে পণ্যবাহী যানবাহন চলাচল নিষেধ। তাই টেকনাফ থেকে পণ্যবাহী যানবাহনগুলো চলাচলের কারণে এলজিইডির সড়কটি নষ্ট হয়ে গেছে। দীর্ঘদিনের অবহেলার কারণে সড়কের বিভিন্ন স্থানে অনেকটা পরিত্যক্তের মত হয়ে গেছে।
যোগাযোগ করা হলে জালিয়াপালং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন চৌধুরী নতুন বাজেট পেলে সড়কের পুণঁসংস্কার কাজ করা হবে বলে প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •