cbn  

সংবাদদাতা:
উখিয়ার প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত নুর হোটেল ও তৎসংলগ্ন গাউছিয়া মার্কেটের মালিকানা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল নুরুল ইসলাম প্রকাশ নুরু সওদাগরের ৩ ছেলের মধ্যে। যার জের ধরে কয়েক দফা হামলার ঘটনা ঘটেছে। সর্বশেষ মঙ্গলবার ছোট ভাই শামসুদ্দিন শামীম (৩৫) এর প্রহারে রক্তাক্ত হয়েছে বড় ভাই মোস্তফা কামাল(৪৩)।

জানা গেছে, উখিয়ার ঐতিহ্যবাহী নুর হোটেলের স্বত্ত্বাধিকারী নুরুল ইসলাম প্রকাশ নুরু সওদাগরের মালিকানাধীর নুর হোটেল ও গাউছিয়া মার্কেট। পৈত্রিক সুত্রে এই সম্পত্তির সমান ভাগে ভাইদের মধ্যে বন্টন হওয়ার কথা থাকলেও ক্ষমতার অপব্যবহার এবং দাপট দেখিয়ে জোরপূর্বক বেশির ভাগ অংশ ভোগ করে আসছিল শামসুদ্দিন শামীম। এ নিয়ে প্রতিবাদ করতে গিয়ে ইতিপূর্বে গত
৩০ জুন২০১৯ আরেক বড় ভাই জসিম উদ্দিন (৩৮) ও তার স্ত্রী জোৎস্না আক্তার (৩০)কে দিন দুপুরে মারধর করে গুরুতর জখম প্রাপ্ত করে।

এ নিয়ে জসিম উদ্দিন অভিযোগ করে বলেন, পিতার ছেলে হিসেবে কেউ অংশে বেশি, আবার কেউ কম পাবে, তাতো হয়না। সমান ভাগ চাইতে গিয়ে আমাকে এবং আমার অন্তসত্তা স্ত্রী মারাত্মক ভাবে আঘাতপ্রাপ্ত করে শামীম ও তার রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী বাহিনী। একই ভাবে মঙ্গলবার ১১টার দিকে অহেতুক আমার আরেক বড় ভাই মোস্তফা কামাল হোটেলে টয়লেট করতে গেলে অহেতুক ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী নিয়ে তার উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে। আমিসহ স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে উখিয়া হাসপাতালে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তার অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করেছে। একেরপর এক ঘটনায় দিন দিন বড় আকারে ধারণ করতে পারে সে জানায়।

এ ব্যাপারে শামসুদ্দিন শামীম সাথে যোগাযোগ করা হলে মোবাইল সংযোগ না পাওয়া বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

উখিয়া থানার ওসি (তদন্ত) নুরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, বিষয়টি আমি শুনেছি। তবে দুপুর পর্যন্ত কোন পক্ষ থানায় অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে অবশ্যই তদন্ত সাপেক্ষ্যে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •