cbn  

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজার ডিসি কলেজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে পরিচিতি নাম্বার সনদ পেয়েছে। Bangladesh Bureau of Educational information statistics (BANBEIS) এর মহাপরিচালক কর্তৃক ২৮ জানুয়ারি স্বাক্ষরিত এক সনদে এ তথ্য জানানো হয়। যার আইআইএন নাম্বার-১৩৮৯৭৯। সনদে কক্সবাজার শহরের বায়তুশ শরফ সড়কের বইল্যা পাড়া এলাকায় স্থায়ী কলেজ ক্যাম্পাসকে কলেজ ভবন উল্লেখ করে কক্সবাজার ডিসি কলেজকে উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মর্যাদা দেওয়া হয়েছে।

কক্সবাজার ডিসি কলেজ প্রতিষ্ঠার মাত্র ৯ মাসের মধ্যে কলেজটি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বেনবেইজ কার্যালয় থেকে পরিচিতি সনদআইআইএন অর্জন করলো।

কক্সবাজার ডিসি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা, কলেজের চেয়ারম্যান ও জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন বলেন, দাপ্তরিক রুটিন দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি সর্বোচ্চ সময় ও শ্রম দিয়ে আমার প্রাণের বিদ্যাপীঠ কক্সবাজার ডিসি কলেজকে সুপ্রতিষ্ঠিত করার জন্য নিরন্তর কাজ করছি। যাতে কক্সবাজার জেলাবাসী আধুনিক বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি সমৃদ্ধ মানসম্মত একটি পরিপূর্ণ কলেজ সারাজীবনের জন্য উপহার পায়। পরিচিতি নাম্বার ইআইআইএন প্রাপ্তিতে কেমন লাগছে, এমন প্রশ্নের জবাবে কক্সবাজার ডিসি কলেজের প্রতিষ্ঠাতা, জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন বলেন, একজন মা সন্তান জন্ম দেওয়ার পর সদ্য প্রসুত সন্তানের চেহারা দেখে যেমন, প্রসুতি সব কষ্ট ভুলে যান, ঠিক একইভাবে ইআইআইএন প্রাপ্তিতে শ্রম ও কষ্টের সফলতা এসেছে বলে আমি মনে করছি। তবে এসফলতা আমার একার নয়, এটার সাথে সংশ্লিষ্ট সকলেই এ বিরল প্রাপ্তির অংশীদার। জেলা প্রশাসক মোঃ কামাল হোসেন এজন্য বেনবেইজের মহা পরিচালক সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

এ বিষয়ে কক্সবাজার ডিসি কলেজের প্রতিষ্ঠাতাকালীন অধ্যক্ষ ও কক্সবাজারের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) মোহাঃ শাজাহান আলি সিবিএন-কে বলেন, কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মহোদয়ের বদান্যতায় যে কলেজের শুরুতে কলেজের বীজ বপনের সময় একজন নগন্য অংশীদার হতে পেরেছি, আজ সে ডিসি কলেজই আইআইএন প্রাপ্তির খবর নিঃসন্দেহে আমার জীবনের একটা মাইলফলক। যাতে আমি শুধু আনন্দিত হইনি, নিজেকে গর্বিতও মনে করছি।

ডিসি কলেজের অধ্যক্ষ মো. ইব্রাহিম হোসেন মহান আল্লাহতায়লার কাছে শোকরিয়া জ্ঞাপন করে সিবিএন-কে বলেন, কক্সবাজার ডিসি কলেজ আইআইএন অর্জন একটা বিশাল প্রাপ্তি। এ প্রাপ্তির জন্য কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মহোদয় সহ যাঁরা নিরন্তর কাজ করেছেন, তিনি তাঁদের, বেনবেইজের মহাপরিচালক সহ সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জানান। ভবিষ্যতেও তিনি কলেজের বিভিন্ন কাজকর্মে সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেছেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •