cbn  

বার্তা পরিবেশক :

কক্সবাজার সিটি কলেজের এক ছাত্রের গত এক সপ্তাহ হতে হদিস পাওয়া যাচ্ছে না। নিখোঁজ এই ছাত্রের পরিবার মনে করছে তাকে মুক্তিপণের উদ্দেশ্যে পরিকল্পিতভাবে অপহরণ করা হয়েছে।

সন্ধান না পাওয়া ছাত্রটির নাম মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন (২২)। তিনি কক্সবাজার সিটি কলেজে বি.এম.এ’তে অধ্যয়নরত। শাহাদাত বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কক্সবাজার পৌরসভার ১০নং ওয়ার্ড শাখা (দক্ষিণ) বর্তমান সভাপতি। তার বাবার নাম আলী হোসেন। তারা ১০নং ওয়ার্ডের আওতাধীন মোহাজেরপাড়ার স্থায়ী বাসিন্দা।

ছেলে নিখোঁজ হওয়ার বিষয়ে শাহাদাতের মা দিলদার বেগম গত ২২ শে জানুয়ারি মঙ্গলবার কক্সবাজার সদর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী (জিডি) করেন। যার নম্বর-১৩৮৪। জিডিতে উল্লেখিত বিষয়ে তদন্ত করার জন্য মডেল থানার এসআই (উপ-পরিদর্শক) বেলাল উদ্দিনকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। জিডিতে নিখোঁজ ছাত্রের মা দিলদার বেগম উল্লেখ করেন, কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতের লাবণী পয়েন্টে তাদের একটি কুলিং কর্ণার দোকান আছে। ওই দোকান থেকে ২১ শে জানুয়ারি সোমবার বেলা ২টা ৩০ মিনিটের সময় দুপুর বেলার খাবার খাওয়ার জন্য বাসার উদ্দেশ্যে বের হয়। পরে বাসায় না আসায় এবং দোকানেও ফিরে না যাওয়ায় তাকে সম্ভাব্য সকল স্থান ও আত্বীয়স্বজনের বাসায় খোঁজা হয়। কিন্তু তার কোন রকম সন্ধান পাওয়া যায়নি। তারা ব্যবহৃত ব্যক্তিগত দুইটি মুঠোফোন ও বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

শাহাদত নিখোঁজের এক সপ্তাহ অতিবাহিত হলেও তার কোন হদিস মেলেনি। তার গায়ের রং উজ্জ্বল শ্যামল এবং উচ্চতা হবে প্রায় ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি। তার পরনে ছিলো টি শার্ট ও জিন্সের প্যান্ট। সে সিটি কলেজে অধ্যয়নের পাশাপাশি পারিবারিক ব্যবসায় সহযোগিতা করতো।

শাহাদাতের মা দিলদার বেগমসহ অন্যান্য নিকট স্বজনরা বলেন, তারা সরকারের বিভিন্ন আইনশৃংখলা বাহিনীর সাথে ও যোগাযোগ করেছেন। তারা জানিয়েছেন তাদের কাছে ও শাহাদাতের অবস্থানের কোন তথ্য নেই। তারা শাহাদাতের অবস্থান জানার জন্য চেষ্টা চালাচ্ছেন।

জানা গেছে, নিখোঁজ হওয়া শাহাদাতের মুঠোফোনে অনেকবার বিভিন্ন ব্যক্তি মুঠোফোন ও টিএন্ডটির ফোন থেকে কল করেছে। শাহাদাতের পরিবার মুঠোফোন কোম্পানীর কাছ থেকে সেই কললিস্ট ও সংগ্রহ করেছে। পরিবারের আশা, সেই কললিস্ট ধরে তদন্ত করলে ঘটনার আদ্যোপান্ত জানা যাবে।

শাহাদাতের বেশ কয়েকজন বন্ধুবান্ধব জানান, ২১ শে জানুয়ারি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের শহীদ দৌলত ময়দানের জনসভায় ছাত্রলীগের কর্মীদের একটি বিরাট মিছিল নিয়ে যোগ দেয় শাহাদাত। এর আগে শাহাদাতসহ নেতা-কর্মীরা কক্সবাজার স্টেডিয়াম এলাকায় জড়ো হয়।

তদন্তকারি কর্মকর্তা এসআই বেলাল উদ্দিন বলেন, খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে, শাহাদাত অত্যন্ত ভাল ও সৎ চরিত্রবান চেলে। তার সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। নানা উপায়ে তার সন্ধান পাওয়ার চেষ্টা চলছে। পুলিশ বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •