মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

লিগ্যাল এইড আইন স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশে প্রণীত আইনের মধ্যে সর্বোত্তম আইন। এই আইনের কারণে গরীব, অসহায়, অস্বচ্ছল, নির্যাতিত সহ সর্বস্থরের মানুষ বিচারিক সুবিধা পাচ্ছে। না হয়, অর্থের অভাবে অথবা আদালতে যাওয়ার অহেতুক ভয়ের কারণে দেশের অনেক মানুষই বিচার পেতোনা। এ আইন নাহলে শুধু স্বচ্ছলরাই দেশের বিচারিক সুবিধা পেতো। লিগ্যাল এইড আইন প্রণয়ন ও কার্যকর করার ফলে আজ সেই বৈষম্য ও অসামঞ্জস্যতা প্রায় দূর হয়েছে।

কক্সবাজারের জেলা ও দায়রা জজ খোন্দকার হাসান মোঃ ফিরোজ সহ তিন জন সিনিয়র বিচারককে কক্সবাজার জেলা লিগ্যাল এইড কমিটি কর্তৃক প্রদত্ত বিদায় সমবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিদায়ী জেলা ও দায়রা জজ এ কথা বলেন। কক্সবাজার-৪ নম্বর আদালতের সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তামান্না ফারাহ্ এর নান্দনিক সঞ্চালনায় ও কক্সবাজার জেলা আদালত ভবন মসজিদের ইমাম মাওলানা আবু তাহেরর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উক্ত বিদায় সমবর্ধনা অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কক্সবাজার জেলা লিগ্যাল এইড অফিসার ও সিনিয়র সহকারী জজ মৈত্রী ভট্টাচার্য। সমবর্ধিত অন্য ২ জন অতিথি ছিলেন, সদ্য জেলা ও দায়রা জজ হিসাবে পদোন্নতি পাওয়া কক্সবাজারের চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আলহাজ্ব তৌফিক আজিজ ও অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাং আবু তাহের। বদলি ও পদোন্নতিজনিত বিদায়ী সমবর্ধনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক (জেলা জজ) মোঃ নুর ইসলাম, চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আলহাজ্ব তৌফিক আজিজ, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাং আবু তাহের, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. আলমগীর মহিউদ্দিন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এডভোকেট আ.জ.ম মঈন উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট ইকবালুর রশিদ আমিন সোহেল, পিপি এডভোকেট ফরিদুল আলম, জিপি এডভোকেট মোহাম্মদ ইসহাক, লিগ্যাল এইডের প্যানেল আইনজীবীদের পক্ষে এডভোকেট মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী।
বিদায়ী জেলা ও দায়রা জজ খোন্দকার হাসান মোঃ ফিরোজ বলেন, বিচারিক দায়িত্ব পালনের জন্য কক্সবাজার দেশের অন্য সব জায়গা হতে সবদিক থেকে উত্তম পরিবেশসম্পন্ন একটি জেলা। অত্যন্ত স্বাচ্ছন্দ্যে, পেশাদারিত্বের সাথে এখানে বিচারিক দায়িত্ব পালন করা যায়।

বিদায় সমবর্ধনায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ-১ ও ২ যথাক্রমে সৈয়দ ফখরুল আবেদীন ও মাহমুদুল হাসান, অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রাজিব কুমার বিশ্বাস, সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মোহাং হেলাল উদ্দিন, সিনিয়র সহকারী জজ খাইরুন্নেছা, সহকারী জজ বেলাল উদ্দিন, জেলা সুপার মোকাম্মেল হোসেন, প্যানেল আইনজীবী এডভোকেট খাইরুল আমিন, এডভোকেট কবি হুমায়ুন কবির, এডভোকেট অধ্যাপক সাকী এ কাউসার, এডভোকেট ইয়াসমিন শওকত জাহান রোজী, এডভোকেট আবদুর রহিম, এডভোকেট মোক্তার আহমদ, এডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ আবু তাহের, এডভোকেট সৈয়দ মোহাম্মদ রেজউর রহমান, এডভোকেট আবুল হোছন, এডভোকেট বাপপী শর্মা, এডভোকেট এবিএম মহিউদ্দিন, এডভোকেট রেজাউল করিম রাজু, এডভোকেট নুরুল হুদা ইমন প্রমুখ।

জেলা লিগ্যাল এইড কমিটির পক্ষ থেকে সমবর্ধনা সভায় বিদায়ী অতিথিবৃন্দকে ফুল ও ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানানো হয়। বিদায়ী সমবর্ধনা ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে ছিলেন, জেলা লিগ্যাল এইড অফিসের প্রধান সহকারী খোকন মাহমুদ ও অফিস সহায়ক শফিক সরদার।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •