সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
আধ্যাত্মিক জগতের মহান সাধক দক্ষিণ চট্টগ্রামের কক্সবাজার জেলার চকরিয়া উপজেলার খুটাখালীর পীর ছাহেব রাহনুমায়ে শরীয়ত ও তরীক্বত শাহ সুফী হযরত শাহ মাওলানা হাফেজ মোহাম্মদ আবদুল হাই (রহ:) ২ দিন ব্যাপী ইছালে ছওয়াব ও দারুল হুফ্ফাজ এতিমখানা, নুরানী মাদরাসা ও মসজিদে বায়তুল মা’মুর ৪৭তম বার্ষিক সভা ও সীরাতুন্নবী (সাঃ) মাহফিল গত ২২ ও ২৩ জানুয়ারী সম্পন্ন হয়েছে। হযরত শাহ মাওলানা হাফেজ আবদুল হাই (রাহ:) ফাউন্ডেশনের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় বুধবার বাদ জোহরের নামাজের পর থেকে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হয়ে হয়ে শুক্রবার ফজরের নামাজের পর শেষ হয়। মরহুম পীর ছাহেব কেবলার (রহঃ) প্রবর্তিত এই মাহফিলে কক্সবাজার জেলাসহ বাংলাদেশের প্রতিটি মুরীদান ও ধর্মপ্রাণমুসল্লীরা অংশগ্রহণ করেন। শাহ আবদুল হাই (রহ:) ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান ও বড়শাহজাদা আলহাজ্ব মাওলানা এসএস আনোয়ার হোছাইন মাহফিলের আখেরী মোনাজাত পরিচালনা করেন। তিনি একান্ত স্বাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, আয়োজিত ইছালে ছাওয়াব ও বার্ষিক মাহফিলে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লক্ষাধিক ধর্মপ্রাণ মানুষ অংশ গ্রহণ করেন এবং প্রায় ৫০ হাজার মানুষের মাঝে খাবার (তাবারুক) পরিবেশন করা হয়। দুইদিন ব্যাপী এই মাহফিলে চকরিয়া-পেকুয়া আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাফর আলম এমএ, সাতকানীয়া লোহাগাড় আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ড. আবু রেজা মো: নেজাম উদ্দিন নদবী, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুস সালাম, চকরিয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুল করিম সাঈদী, আলীকদম উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম, স্থানীয় খুটাখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুর রহমান, চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি আবদুল মজিদসহ বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তারা এবং সাংবাদিকগনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। মাহফিলে গারাঙ্গীয়া দরবারের আওতাভূক্ত পীর ছাহেবগন ও দেশ বরণ্য ওলামায়ে কেরামগন উপস্থিত ছিলেন এবং কোরআন ও হাদিসের আলোকে দুনিয়া ও আখেরাতের কল্যাণময় আলোচনা পেশ করেন। এবারের মাহফিলে প্রায় ৫০ লক্ষাধিক টাকা ব্যয় হয়েছে বলে জানাগেছে এবং মরহুম খুটাখালীর পীর ছাহেব হুজুরের ভক্তরা স্বস্ব উদ্যোগে মাহফিলের জন্য দানও করেন। পরে মুরিদান-ভক্তরা খুটাখালী পীর ছাহেব হুজুর (রহ:)এর বাড়ি সংলগ্ন কবর জিয়ারত করতে যান।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •