মহেশখালীতে বঙ্গবন্ধুর উন্নয়ন দর্শন শীর্ষক আলোচনা সভা

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

আশেক উল্লাহ রফিক এমপি বলেছেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম হয়েছিল বলেই আমরা একটি স্বাধীন দেশ পেয়েছি। তিনি ছিলেন বাঙ্গালী জাতির মুক্তির দিশারী। ১০ জানুয়ারি স্বদেশ প্রত্যাবর্তন করে ৪৫ দিনের মধ্যেই মিত্র বাহিনীর সদস্যদের ফেরত পাঠাতে সক্ষম হয়েছেন যা বিশ্বে অনন্য রেকর্ড়। এমন একজন রাষ্টনায়কের শততম জন্মবার্ষিকীর আনন্দ শোভাযাত্রা করতে পেরে আমরা গর্বিত। তিনি আরো বলেন ১৭ই মার্চ এই মহা নায়কের শততম জন্মদিন স্মরণীয় করে রাখতে গত ১০ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বাদেশ প্রত্যার্বতন দিনে শুরু হয়েছে ক্ষণগননা। আমরা আগামী ১৭ মার্চ এই ঐতিহাসিক দিনকে যথাযতভাবে পালন করতে চাই। তিনি গতকাল সকাল ১০টায় জাতির জনকের শততম জন্ম বার্ষিকীর উপলক্ষে আনন্দ শোভাযাত্রা শেষে বঙ্গবন্ধুর উন্নয়ন দর্শন শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানের আগে আশেক উল্লাহ রফিক এমপি’র নেতৃত্বে বিশাল আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিপুল সংখ্যক আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও বিভিন্ন পেশার লোকজন অংশগ্রহন করেন। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অনুষ্ঠানের সভাপতি মোঃ জামিরুল ইসলাম। অধ্যাপক আশীর্ষ চক্রবর্তীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার পাশা চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্ঠা ডাঃ নুরুল আমিন, সহসভাপতি এম আজিজুর রহামন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শরীফ বাদশা, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা পৌর মেয়র মকছুদ মিয়া, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ফরিদুল আলম, জেলা পরিষদ সদস্য মশরাফা জান্নাত। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহকারি কমিশনার ভুমি, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মাস্টার লিয়াকত আলী, সহসভাপতি মোহাম্মদ ফোরকান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডঃ আবু তালেব, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মিনুয়ারা বেগম, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি অধ্যাপক সরওযার কামাল, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ব্রজ গোপল ঘোষ, দপ্তর সম্পাদক নির্মল চক্রবর্তী, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক সাজেদুল করিম, তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা তৌফিক উল্লাহ শাকিল, ধলঘাটার চেয়ারম্যান কামরুল হাসান, কুতুবজুমের চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন খোকন, হোনায়কের চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মাস্টার মাহবুবুল আলম, মাস্টার মাহমুদুল করিম, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ছালেহ আহমদ,উপপ্রচার সম্পাদক প্রভাষক এহছানুল করিম, সাবেক চেয়ারম্যান শামসুল আলম, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক যুগ্ম আহবায়ক এডঃ শেখ কামাল, উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক আবু ছালেহ, আবু জাফর ছিদ্দিকী, শান্তি লাল নন্দী, উপজেলা আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক প্রণব কুমার দে, মাস্টার আমিন শরীফ, হোয়ানক আওয়ামী লীগের সভাপতি মীর কাসেম, বড় মহেশখালী আওয়ামী লীগের সভাপতি সিরাজ মিয়া বাশি, জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আশহাদ উল্লাহ সায়েম, নুরুল আমিন খোকা, নুর মোহাম্মদ, ধলঘাটার হোয়ানক আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাফর আলম জফুর, ছোট মহেশখালীর এনামুল করিম, কুতুবজুমের রবিউল আলম, মাতারবাড়ির এস এম আবু হায়দার, শাপলাপুরের জসিম উদ্দিন, বড় মহেশখালীর নুরুল আমিন, পৌর আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহবায়ক রফিকুল ইসলাম, আবু ছিদ্দিক, এবাদুল করিম বাদল, হোয়ানক আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল আলম চৌধুরী, শ্রমিক লীগের সভাপতি আবদু শুক্কুর, সাধারণ সম্পাদক সরওয়ার আলম, উপজেলা মৎস্যজীবি লীগের সভাপতি জাবের আহমদ, সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিনা আকতার, মহিলা জেলা ছাত্রলীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক সরওয়ার কাইছার ছিদ্দিকী সোহেল, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হালিমুর রশিদ, সাধারণ সম্পাদক পারভেজ আহমদ বাবু, পৌর যুবলীগের আহবায়ক মোঃ মামুন, পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক প্রভাষক নেওয়াজ কামাল, উপজেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলতাজ আহমদ, পৌর শ্রমিক লীগের সভাপতি রিপন উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সাহাব উদ্দিন হিরু, মোঃ শাহনেওয়াজ, ছোট মহেশখালীর সভাপতি ইরফান উল্লাহ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •