ডেস্ক নিউজ:

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া মারা গেলেও দেশ ত্যাগ করবেন না বলে মন্তব্য করেছন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আহ্বায়ক খন্দকার মাহবুব হোসেন। তিনি জানিয়েছেন, দুর্নীতির দুই মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাগারে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিলেও পালিয়ে যাবেন না। জামিনে বা প্যারোলে মুক্তির পর চিকিৎসার জন্য বিদেশ গেলেও তিনি পালাবেন না।

বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির শহীদ সফিউর রহমান মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান তিনি। বিএনপির আইনজীবীদের কেন্দ্রীয় সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলনটির আয়োজন করা হয়।

তিনি বলেন, ‘ফৌজদারি কার্যবিধি আইনের ৪০১ (১) ধারা অনুযায়ী সাজা স্থগিত করে কারাবন্দী খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করেছে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম। এ দাবি মানা না হলে আগামী ১৩ জানুয়ারি দেশের সকল আইনজীবী সমিতিতে খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করা হবে।’

লিখিত বক্তব্যে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, ‘তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে দুটি মিথ্যা মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাগারে আছেন। তিনি একজন বয়স্ক, অসুস্থ মহিলা। প্রচলিত আইনে তিনি জামিন প্রাপ্য। পিজি (বিএসএমএমইউ) হাসপাতাল থেকে মেডিকেল বোর্ড তার স্বাস্থ্য সম্বন্ধে যে প্রতিবেদন দিয়েছে তাতে তার এডভান্স চিকিৎসা দরকার। কিন্তু এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়নি।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, এটা রাজনৈতিক প্রতিহিংসার চরম অভিব্যক্তি। এখানে উল্লেখ্য, ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ (১) ধারা মোতাবেক কোনো সাজার কার্যকারিতা শর্তহীনভাবে স্থগিত করার একমাত্র ক্ষমতা সরকারের হাতে। আমরা আশা করি, সরকার প্রতিহিংসার পথ পরিহার করে আইনগতভাবেই চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে পারেন। এ জন্য প্রয়োজন সরকারের সদিচ্ছা। তাই আমরা সরকারের নিকট অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার দণ্ডাদেশ স্থগিত করে তার ইচ্ছামতো দেশে কিংবা বিদেশে চিকিৎসা নেয়ার সুযোগ করে দেয়ার দাবি জানাচ্ছি।’

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •