আলমগীর মানিক,রাঙামাটি :
পাঁচ বছর বয়সী কন্যা শিশুকে শ্লীলতাহানি ও ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধকে আটক করেছে রাঙামাটির কোতয়ালী থানা পুলিশ। আটককৃতের নাম নুরুল ইসলাম(৬০)। শহরের পাবলিক হেলথ এলাকা থেকে তাকে মঙ্গলবার রাত সাড়ে এগারোটার সময় আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন কোতয়ালী থানার ওসি তদন্ত নুরুল ইসলাম খান।
বুধবার বিকেলে তাকে রাঙামাটির আদালতে সোপর্দ করে পুলিশ। রাঙামাটির সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত-৩ এর বিচারক প্রবাল চক্রবর্তি জিআর-৮/২০ নাম্বারের মামলায় গ্রেফকৃত আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণের আদেশ দিয়েছেন। বুধবার বিকেলে আদালত এই আদেশ প্রদান করেছেন বলে প্রতিবেদককে আদালত সূত্র নিশ্চিত করেছে।
ভিকটিম শিশুটির পিতা জানিয়েছেন, তাদের প্রতিবেশি নুরুল ইসলাম বিদ্যুৎ অফিসের সাবেক কর্মচারি। তার ছয় সন্তান বিদেশে থাকে এবং স্ত্রী চট্টগ্রামে থাকে। উক্ত বৃদ্ধ একাই পাবলিক হেলথ এলাকার বাসায় থাকতেন। বৃদ্ধকে ভিকটিম নানা ডাকতো। সেই সুবাধে মঙ্গলবার সন্ধ্যারাতে তার মেয়ে প্রাইভেট পড়া শেষে বাসায় ফেরার সময় মেয়েটিকে চকলেট খাওয়ানোর কথা বলে নিজের বাসায় নিয়ে যায়। এসময় মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্ঠা করে নুরুল ইসলাম। পরে মেয়েটি বাসা ফিরে আসলে তার পড়নে ময়লাযুক্ত প্যান্ট দেখে মায়ের সন্দেহ হয়। এসময় তাকে জিজ্ঞাসা করলে মেয়েটি তার মাকে ঘটনার বিবরণ জানায়। স্থানীয়রা বিষয়টি জানতে পেরে ৯৯৯ এ কল করে জানিয়ে দেয়। পরে কোতয়ালী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উক্ত বৃদ্ধাকে আটক করে তার বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ সংশোধনী ২০০৩ এর ৯(৪) এর খ/১০ ধারায় মামলা দায়ের করে। কোতয়ালী থানায় দায়েরকৃত মামলা নাম্বার-৪। তারিখ ০৭/০১/২০১৯। রাত সাড়ে এগারোটার সময় এই মামলা রুজু করা হয়েছে বলে জানিয়েছে কোতয়ালী থানা পুলিশ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •