সংবাদ বিজ্ঞপ্তি :
কক্সবাজার-১ আসনের সংসদ সদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর আলম বলেছেন, আমি বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশ ভ্রমণ করেছি। কোথাও দেখিনি বাংলাদেশের মতো সম্প্রীতি ও অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র। এখানে ধর্ম যার যার হলেও সকল সম্প্রদায়ের মানুষ একত্রে উৎসব পালন করেন। আর এটি একমাত্র সম্ভব হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর কন্যা দেশরত্ন শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হওয়ায়। অতএব আমাদেরকে এই সম্প্রীতি বজায় রেখে পুরো বিশ্বের কাছে অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রের দৃষ্টান্ত হিসেবে বাংলাদেশকে তুলে ধরতে হবে।
এমপি জাফর আলম ‘এই পদ্মা, এই মেঘনা, এই যমুনা-সুরমা নদী তটে’ গান গেয়ে বক্তব্য শুরু করেন।

আজ শুক্রবার সন্ধ্যায় ‘সৎসঙ্গ বাংলাদেশ’ চকরিয়া উপজেলা শাখার উদ্যোগে পৌরশহরের চিরিঙ্গা হিন্দুপাড়ার প্রয়াত সারদা কিশোর দাশ মহাজনের বাড়ির উঠানে আয়োজিত যুগপুরোষোত্তম পরমপ্রেমময় শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূল চন্দ্রের ১৩২তম জন্ম মহোৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখছিলেন এমপি জাফর আলম। মহোৎসব উদযাপন পরিষদের পক্ষ থেকে এমপি জাফর আলম, ইউএনও নূরুদ্দীন
মুহাম্মদ শিবলী নোমান, ওসি মো. হাবিবুর রহমান, সাংবাদিক ছোটন কান্তি নাথকে সম্মাননা ক্রেষ্ট তুলে দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন এসপিআর মৃদুল ধর (সৎসঙ্গী)। পৌরসভা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সৌরভ দাশ সুনীপ ও
প্রসেনজিৎ ধর রুবেলের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমান, চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদ চকরিয়ার সভাপতি রতন বরণ দাশ, কাতার প্রবাসী বিশিষ্ট দানবীর রতন কুমার সুশীল, পৌরসভা আওয়ামী লীগ নেতা ওয়ালিদ মিল্টন, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা আবু মুছা, চিরিঙ্গা কেন্দ্রীয় হরিমন্দির উন্নয়ন কমিটির সভাপতি প্রদীপ দাশ, জাগো হিন্দু পরিষদ জেলার সভাপতি সাংবাদিক ছোটন কান্তি নাথ। আরো উপস্থিত ছিলেন নন্দরাম ধর মহাজন, বিকাশ ধর মহাজন, হৃদয় রঞ্জন দাশ মহাজন, সৎসঙ্গী পথিক চন্দ্র দে, দিলীপ সুশীল, উৎসব উদযাপন কমিটির সভাপতি বিধান ধর, সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব ধর, কোষাধ্যক্ষ সুজন দে, অমল সেন, সুরতরঙ্গ’র শান্তা সেন, নিখিল ধর, উত্তম দাশ, বিকাশ দাশ, বাবলু দাশ বাবু, পায়েল চৌধুরী, জয় দে, বন বিহারী দে, রনি
দাশ, সুজয় দাশ, রাজীব বিশ্বাস, সাজু ধর, শিমুল নন্দী, শিমুল সুশীল, ধনঞ্জয় চৌধুরী, পিকলু তালুকদার, পাভেল তালুকদার, রাকেশ বসাক, আদিত্য রুদ্র প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, ‘আপনারা সাড়ম্বরেই সকল ধরণের ধর্মীয়আচার-অনুষ্ঠান করবেন। এজন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় সকল ধরণের সহায়তা দেওয়া হবে। থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘শ্রী শ্রী ঠাকুর অনুকূলচন্দ্রের এই জন্ম মহোৎসবে উপস্থিত হতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি। এই অনুষ্ঠান সুচারুরূপে সম্পন্ন করার জন্য পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •  
  •  
  •