cbn  

বিবিসি বাংলা:

অস্ট্রেলিয়ার উপকূলে ভয়াবহ দাবানলে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে দুশোরও বেশি বাড়িঘর। সোমবার থেকে এ পর্যন্ত মারা গেছে সাতজন।

মঙ্গলবারেই বহু মানুষ যারা বাড়িঘর ছেড়ে যেতে পারেননি তারা সবাই সমুদ্র সৈকতে দৌড়েছিলেন কারণ আগুনের হল্কা ধেয়ে আসছিলো শহরের দিকে।

ইস্ট গিপসল্যান্ড আর ভিক্টোরিয়াতেই ৪৩টি বাড়ি ধ্বংস হয়েছে আর ১৭৬টি শেষ হয়ে গেছে নিউ সাউথ ওয়েলস।

তবে অবস্থার সামান্য উন্নতি হয়েছে এবং ভিক্টোরিয়াতে বন্ধ করে দেয়া একটি সড়ক দু ঘণ্টার জন্য খুলেও দেয়া হয়েছিলো যাতে করে লোকজন সরে যেতে পারে।

কিন্তু নতুন বছরের প্রথম প্রহরেই নিউ সাউথ ওয়েলসে অন্তত ১১২টি বাড়ি পুড়ে যেতে দেখা গেছে।

ভিক্টোরিয়াতে দাবানল সতর্কতার সাথে একটি জরুরি অবস্থার সতর্কতাও ছিলো। পরে সেটিকে কমিয়ে ‘ওয়াচ অ্যান্ড অ্যাক্ট’ সতর্কতা দেয়া হয়।

এর আগে গত বুধবার নিউ সাউথ ওয়েলসের ফায়ার সার্ভিস বিভাগ জানিয়েছিলো এ বছর আগুনে সেখানকার মোট ৯১৬টি বাড়ি ধবংস হয়েছে।

এছাড়া ক্ষতি হয়েছে আরও অন্তত ৩৬৩টি বাড়ির।

নিউ সাউথ ওয়েলসের প্রধানমন্ত্রী গ্লাডিস বেরেজিকলিয়ান বলেছেন আবহাওয়া সহনীয় হয়ে এলে সড়ক পরিষ্কার ও বিদ্যুৎ পুনরায় চালুর চেষ্টা করবেন কর্মীরা।

তবে তিনি এও জানিয়েছেন যে শনিবার নাগাদ তাপমাত্রা আরও বাড়তে পারে।

এবারের এই আগুনে গত কয়েকদিনে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে।

আর চলতি বছর অস্ট্রেলিয়াতে দাবানলে পনের জনের মৃত্যু হয়েছে।

ওদিকে মঙ্গলবারই দেশটির সরকার জানিয়েছে আগুণ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনী অতিরিক্ত বিমান, হেলিকপ্টার ও নৌকা পাঠাবে নিউ সাউথ ওয়েলসে।

শুক্রবার নাগাদ ভিক্টোরিয়া ও নিউ সাউথ ওয়েলস উপকূলে উভচর জাহাজ পৌঁছাবে বলে জানিয়েছে দেশটির সেনাবাহিনী।

ওদিকে মালাকোটাতে অ্যালিসন মারিওন নামে একজন নারী তার এগার বছর বয়সী সন্তান নৌকা চালিয়ে পরিবারকে নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যাচ্ছে এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •