শাহেদ মিজান, সিবিএন:

কক্সবাজার শহরের খুরুশ্কুল সড়কের আয়কর কার্যালয়ের সামনে থেকে মৃত উদ্ধার হওয়া সেই যুবকের পরিচয় মেলেনি। পুলিশ নানাভাবে অনুসন্ধান করেও রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত তার পরিচয় জানতে পারেনি। এই ঘটনায় আটক আটজনও পুলিশকে কোনো তথ্য দেয়নি। তারা এই ঘটনার ব্যাপারে কিছু জানে না বলে দাবি করছে। কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) খাইরুজ্জামান এই তথ্য জানান।

জানা গেছে, শুক্রবার বেলা ৩টার দিকে কক্সবাজার সদর মডেল থানার একদল পুলিশ লাশটি উদ্ধার করেন। এর আগে বেলা আড়াইটার দিকে পাশের একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে ওই যুবকটি পড়ে। এই ঘটনায় ওই ভবনের আটজনকে আটক করা হয়েছে।

আশেপাশের লোকজন জানান, বেলা আড়াইটার দিকে জনশূন্য সড়কে বিরাট শব্দ শোনা যায়। শব্দ শোনার পর দোকান ও অন্যান্য প্রতিষ্ঠানের লোকজন বের হয়ে সেখানে এক ২৮ থেকে ৩০ বছরের যুবককে পড়ে থাকতে দেখেন। পড়ার পর তাকে মৃত অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়। সাথে সাথে পুলিশ কে খবর দেন লোকজন। স্থানীয় লোকজন ধারণা করছেন, ওই যুবককে পাশের নির্মাধীন ভবন থেকে ফেলে দেয়া হয়েছে। উপর থেকে ফেলার কারণে তার হাড় ভেঙে গেছে। তবে ফেলার আগেও তার মৃত্যু হতে পারে।

সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, সড়কের পশ্চিম পাশের ভবনের উঁচু স্থান থেকে আকস্মিক সড়কের উপর ছিটকে পড়ে যুবকটি। ছিটতে পড়ার সময় তার কোনো নড়াচড়া ছিলো না। তখন দু’পাশে কয়েকজন লোককে দেখা যাচ্ছে।

লাশ উদ্ধারে যাওয়া কক্সবাজার সদর মডেল থানার এসআই কাঞ্চন জানান, সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে পাশের নির্মানাধীন ভবন থেকে ওই যুবককে ফেলে দেয়া হয়েছে বা পড়ে গেছে। এই ঘটনায় ওই ভবনের আটজনকে আটক করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে মর্গে নেয়া হয়েছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) খাইরুজ্জামান রাত সাড়ে ৯টার দিকে জানান, বিভিন্ন অনুসন্ধান করেও নিহত যুবকের পরিচয় সনাক্ত করা যায়নি। একইভাবে কি কারণে সে মারা গেছেও তারও জানা যায়নি। যে আটজনকে আটক করা হয়েছে তাদের কাছেও কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। তারা এই ঘটনার ব্যাপারে কিছু জানেন না বলে দাবি করছে।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •