আবুল কালাম, চট্টগ্রাম:

ভালবাসার টানে সুদুর ব্রিটিশ তরুণ চট্টগ্রামে চলে আসলো। প্রেম বলে কথা বিয়ে করলেন সন্দ্বীপের মেয়ে ফেরদৌসি কবির মুক্তাকে শুধু বিয়ে নয় নিজের নামও প্রেমিকার পারিবারিক নামের সাথে মিলিয়ে পরিবর্তন করলেন ব্রিটিশ তরুণ গ্রাহাম।

শুক্রবার (২৭ ডিসেম্বর) নগরীর রিমা কনভেনশন হলে তাদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয়।

শুধু তাই নয় বিয়ে করে স্ত্রীর দেশের সামাজিক রীতিকে সম্মান জানাতে চট্টগ্রামে এসে বাঙালী মুসলিম সমাজের নিয়ম মেনে বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সেরেছেন গ্রাহাম। এর আগে তিনি ধর্মও পরিবর্তন করেছিলেন। কনে ফেরদৌসি কবির মুক্তাকে বিয়ে করতে এমনই অনন্য উদাহরণ বনে গেলেন বর গ্রাহাম স্টুয়ার্ট। নাম বদলে গ্রাহাম হলেন সাইমন কবির।

ফেরদৌসি কবির মুক্তা সন্দ্বীপের দীর্ঘাপাড় ইউনিয়নের হুমায়ুন কবির হেলালীর মেয়ে। দীর্ঘদিন যাবত চট্টগ্রামের লাভলেইন এলাকায় বসবাস করেন তারা। ২০১৭ সালে লন্ডনের নটিংহাম ইউনিভার্সিটিতে পড়তে যান মুক্তা। সেখানে পড়াকালীন গ্রাহামের সঙ্গে তার পরিচয় হয়। সেই পরিচয়ে তাদের প্রণয় গড়ে ওঠে। পারিবারিকভাবে বিয়ের আলাপ হলে ধর্মের কথা সামনে আসে। এ সময় ধর্মান্তরিত হয়ে মুক্তাকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেন গ্রাহাম। পরে স্ত্রী মুক্তার সামাজিক রীতিকে সম্মান জানাতে চট্টগ্রামে এসে বাঙালী মুসলিম সামাজিক নিয়মে আবারো বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন করতে গত ১৪ ডিসেম্বর চট্টগ্রামে আসেন গ্রাহাম। বাঙালী রীতি অনুযায়ী ২৬ ডিসেম্বর গায়ে হলুদ।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •