প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

কক্সবাজারের স্বনামধন্য মা ও শিশু স্বাস্থ্যসেবার প্রতিষ্ঠান রামুর চেইন্দায় অবস্থিত হোপ হসপিটাল পরিদর্শন করেছেন পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন। গতকাল মঙ্গলবার বিকালে তিনি এই পরিদর্শনের যান। এসময় তাঁর সাথে ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আদিবুল ইসলাম। হোপ হসপিটালে তাকে স্বাগত জানান, হোপ ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর কেএম জাহিদুজ্জামান। এছাড়াও চীফ মেডিকেল অফিসার ডা. মোহাম্মদ শহীদসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা সাথে ছিলেন।

পরিদর্শনকালে পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন হোপ হসপিটালের সব বিভাগ ঘুরে দেখেন। এসময় তিনি রোগী, রোগীর স্বজন, চিকিৎসক, নার্সসহ অন্যান্য কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের সাথে কুশল বিনিময় করেন। একই সাথে হাসপাতালের চিকিৎসা ও সেবা কার্যক্রমসহ যাবতীয় কার্যক্রম সম্পর্কে খোঁজ-খবর নেন এবং সার্বিক বিষয়ে অবগত হন। সব দেখে এবং জেনে তিনি অবিভূত হন এবং হাসপাতালের কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে এক আলাচারিতায় মিলিত হন পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন। এসময় তিনি বলেন, আমি এবারই প্রথম হোপ হসপিটালে আসলাম। আমার ধারণা ছিলো, হোপ হসপিটাল ছোট্ট পরিসরের একটি হসপিটাল এবং সেবা কার্যক্রমও সীমিত। কিন্তু এখানে আসার পর আমার ধারণাটা ভেঙে গেলো। হাসপাতালের পরিসর-পরিধি এবং সেবার কার্যক্রম বৃহৎ। এতে আমি অভিভূত হয়েছি। একই সাথে চিকিৎসক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের হাসপাতালের প্রতি যে মমত্ববোধ এবং দায়িত্বশীলতা অবলোকন করেছি তা প্রশংসনীয়। এই অবস্থান ধরে রেখে হোপ হসপিটাল আরো বহুদূর এগিয়ে যাবে এই প্রত্যাশা রইল।

পরিদর্শনকালে পুলিশ নিজের পক্ষ থেকে হোপ হসপিটালের জন্য উন্নতমানের একশটি কম্বল উপহার দেন। পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেনের এই আন্তরিকতার জন্য তাকে ধন্যবাদ জানান হোপ ফাউন্ডেশনের কান্ট্রি ডিরেক্টর কেএম জাহিদুজ্জামান।

অন্যদিকে হোপ হসপিটালে মঙ্গলবার দিনব্যাপী একটি ফ্রি চর্মরোগের মেডিকেল ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়। উক্ত ক্যাম্পে ৬৭২ জন রোগীকে ফ্রি চিকিৎসা ও ফ্রি প্রয়োজনীয় ওষুধ প্রদান করা হয়। একই সাথে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে হোপ ফিল্ড হসপিটালেও তিনব্যাপাী ফ্রি চর্মরোগের মেডিকেল ক্যাম্প চলছে।

উল্লেখ্য, প্রসঙ্গত, হোপ ফাউন্ডেশন ফর উইমেন এন্ড চিলড্রেন ১৯৯৯ সাল থেকে কক্সবাজারের প্রত্যন্ত ও সুবিধাবঞ্চিত এলাকার দরিদ্র, দুঃস্থ ও অসহায় মানুষের সেবায় নিয়োজিত রয়েছে। কক্সবাজারের কৃতিসন্তান ডা. ইফতিখার মাহমুদ মিনার এই হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠান করেন।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •