সিবিএন:
অতিরিক্ত যাত্রী বহনের দায়ে কক্সবাজারের টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে চলাচলকারী ৮টি জাহাজকে জরিমানা করা হয়েছে। আজ সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) বেলা ১১টার দিকে হ্নীলার দমদমিয়া (বিআইডব্লিউটিএ) বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ নৌবন্দরে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে পর্যটকবাহী এই ৮টি জাহাজকে ২ লাখ ১ হাজার ৯০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নৌ-পুলিশের (ওসি) মো. আব্দুল্লাহ, নৌ-বন্দরের ট্রাফিক কর্মকর্তা জহির উদ্দিন ভূইয়া, অপারেটর মো. জাহাঙ্গীর আলম ও নৌ পুলিশের এস আই মো. মিরাজ উদ্দিন। উপজেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, ১ নভেম্বর থেকে কেয়ারি ক্রুজ এন্ড ডাইন, আটলান্টিক ক্রুজ, এমভি ফারহান, কেয়ারি সিন্দাবাদ, এমভি দোয়েল পাখি, গ্রীণ-লাইন-১, বে-ক্রুজ ও এমভি পারিজাত নামে ৮টি জাহাজকে আগামী বছরের (২০১০ সাল) ৩০ মার্চ পর্যন্ত চলাচলের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

এর মধ্যে সবকটি জাহাজ প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে প্রতিদিন অনুমতির চেয়ে বেশি যাত্রী বহন করে বলে জানা যায়। টেকনাফের ইউএনও মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন কর্তৃপক্ষ ও নৌ-পুলিশের সহযোগিতায় জাহাজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) একটি বৈঠক হয়েছিল। সে বৈঠকে অতিরিক্ত যাত্রী পরিবহন, পর্যটক হয়রানি ও পর্যাপ্ত লাইফ জ্যাকেট রাখার নির্দেশনা দিয়ে সতর্ক করা হয়েছিল। এ আদেশ অম্যান্য করায় জাহাজগুলোতে অভিযান চালিয়ে ২ লাখ ১ হাজার ৯০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে সোমবার (২৩ ডিসেম্বর)। কোনো জাহাজ কর্তৃপক্ষ আদেশ অম্যান্য করলে সঙ্গে সঙ্গে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •