এস.এম.হারুনুর রশিদ নয়ন:
টেকনাফ উপজেলার অবহেলিত উপকূলীয় ইউনিয়ন সৈকত নগরী বাহার ছড়ায় শিক্ষার উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠিত “আল-আমিন ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ-এ.এফ.বি.” কর্তৃক শিক্ষার্থীদের মেধা বিকাশের লক্ষ্যে আয়োজিত “কামসো মেধা অন্বেষণ বৃত্তি পরীক্ষা-২০১৯” আজ ‘কচ্ছপিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে’ সকাল ১০ টা ৩০ মিনিটের সময় অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত বৃত্তি পরীক্ষায় টেকনাফ সদর ইউনিয়ন ও বাহার ছড়া ইউনিয়নের ১৬টি প্রতিষ্ঠানের (৩য় ও ৪র্থ শ্রেণি) ১৩৮ জন পরীক্ষার্থী আবেদন করেন।তার মধ্যে টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৫টি প্রতিষ্ঠানের (৩য় ও ৪র্থ শ্রেণি) ৪৩ জন এবং বাহার ছড়া ইউনিয়নের ১১টি প্রতিষ্ঠানের (৩য় ও ৪র্থ শ্রেণি) ৯৫ জন পরীক্ষার্থী আবেদন করেন।প্রসঙ্গত,অত্র সংগঠনটি বিগত তিন বছর যাবৎ অর্থাৎ প্রতিষ্ঠা বর্ষ থেকে প্রতিবছর উক্ত বৃত্তি পরীক্ষার আয়োজন করে যাচ্ছে।উক্ত বৃত্তি পরীক্ষায় কেন্দ্র পরিদর্শকের দায়িত্ব পালন করেন,অত্র সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা ও লম্বরী মলকাবানু উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক,মোঃ আবু তাহের (এম.এস.সি-অর্থনীতি),বিশেষ উপদেষ্টা ও কেরুনতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক,মাষ্টার সিরাজুল হক,বিশেষ উপদেষ্টা,হাফেজ মনির আহমদ,বিশেষ উপদেষ্টা ও সার্ভেয়ার,আলী আকবর,বিশেষ উপদেষ্টা,মাওলানা ছৈয়দ কাশেম,কচ্ছপিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক,মোঃ আলী,বিশেষ উপদেষ্টা ও বাহার ছড়া ইউনিয়ন ৮ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি,নুরুল কবির প্রমুখ।উপস্থিত ছিলেন,বিশেষ উপদেষ্টা ও দাতা সদস্য,হুসাইন আহমদ,বিশেষ উপদেষ্টা ও দাতা সদস্য,ছৈয়দুল ইসলাম,বিশেষ উপদেষ্টা,মোঃ জাফর,মোঃ আলম,আজিজুল করিম,আব্দুর রকিম,জাহাজপুরা মডেল ছাত্র ঐক্য পরিষদের সভাপতি,সাদ্দাম হোসাইন প্রমুখ।উক্ত পরীক্ষায় কেন্দ্র সচিবের দায়িত্ব পালন করেন,অত্র সংগঠনের সভাপতি,শফিউল্লাহ নান্নু,পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের দায়িত্ব পালন করেন,অত্র সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক,ইঞ্জিনিয়ার রইচ ইসলাম,হল সুপারের দায়িত্ব পালন করেন,অত্র সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক,এস.এম.হারুনুর রশিদ নয়ন।কক্ষ পরিদর্শক ছিলেন,ছেনুয়ারা আক্তার,হুসাইন আল মুহিত,ছমিরা আক্তার,জিয়াবুল হক,নজরুল ইসলাম হৃদয়,আনোয়ারা আক্তার,আবছার বিন কামাল,রোকসানা আক্তার,হাফেজ মোঃ হারুন ও জসিম উদ্দীন।প্রাথমিক চিকিৎসকের দায়িত্ব পালন করেন,বিশেষ উপদেষ্টা,আব্দুল গণি,নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করে,গ্রাম পুলিশ,শহিদ উল্লাহ এবং স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব পালন করেন,তারেক মনোয়ার জয়,মোঃ রফিক,আব্দুল্লাহ আল-মামুন,মাঈন উদ্দিন,মোঃ ফারুক,মোঃ আব্দুল্লাহ,মোঃ উমর ফারুক,আব্দুল আমিনসহ সংগঠনের সকল সদস্যবৃন্দ।উক্ত পরীক্ষায় অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,মোহাম্মদিয়া রিয়াদুল জান্নাহ দাখিল মাদ্রাসার সহকারী মাওলানা,হাফেজ আব্দুল জলিল।তিনি তাঁর মন্তব্যে বলেন,”এই বৃত্তি পরীক্ষাটি একটি ভালো উদ্যোগ।এটা এলাকার সুনাম বৃদ্ধি করবে এবং এটা শিক্ষার উন্নয়নে অনেক একটা গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে।আর এই মহতী উদ্যোগে সকল এলাকাবাসীর সাহায্য করা প্রয়োজন।আমি যতটুকু পারি এই সংগঠনকে সাহায্য করে যাব।আমি সব সময় তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করব”।উক্ত বৃত্তি পরীক্ষায় সর্বোচ্চ সংখ্যক ৫টি বৃত্তি পেয়ে “স্কুল অব দ্য ইয়ার” নির্বাচিত হয়েছে,”আল-আরাফাহ মডেল একাডেমী” এবং সর্বোচ্চ নাম্বার পেয়ে “ট্যালেন্ট অব দ্য ইয়ার” নির্বাচিত হয়েছে,আল-আরাফাহ মডেল একাডেমীর ৪র্থ শ্রেণির ছাত্র মোঃ হাসানুল জাবেদ জিহান।
নিচে উক্ত পরীক্ষার ফলাফল দেওয়া হলো:

উক্ত বৃত্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী সকল পরীক্ষার্থী ও বৃত্তিপ্রাপ্তদের জন্য রইল শুভ কামনা।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •   
  •  
  •